পেকুয়া প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের পেকুয়ায় বাল্য বিয়ে দেয়ার চেষ্টায় বরের পিতাকে ১০ হাজার ও কনের মাতাকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার দুপুরে পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতাছেম বিল্যাহ এ জরিমানা রায় দেন।

জানা গেছে, পেকুয়া উপজেলাধীন বারবাকিয়া ইউপির সবজীবন পাড়া এলাকার শফিউল আলম ও মোছাদ্দেকা বেগমের মেয়ে পেকুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী নাহিদা বেগমকে একই ইউপি দফাদার ছৈয়দ এর ছেলে রাশেদের জন্য বিয়ের সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন হয়।

বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোতাছেম বিল্যাহ পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইফুর রহমান মজুমদারকে সাথে নিয়ে বর ও কনের বাড়ি ঘটনাস্থলে যান।

এসময় তিনি বাল্যবিয়ের দেয়ার চেষ্টার ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় কনের মাকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন। এরপর বর রাশেদের বাড়িতে গিয়ে পিতা দফাদার ছৈয়দকে ১০হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সাথে ওই স্কুল ছাত্রী বিয়ের উপযুক্ত না হওয়া পর্যন্ত বাল্য বিয়ে থেকে বিরত থাকবে মর্মে মুচলেকা নেয়া হয়।

ইউএনও মোতাছেম বিল্যাহ ৭ম শ্রেণির ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বাল্য বিয়ে নিরোধ আইনে বরের পিতাকে ১০হাজার টাকা আর কনের পিতাকে ২হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •