ছবি : শিক্ষক নাট্যকার আব্দুর রহিম

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:
প্রথম আলো থেকে চাকুরীচুত্য রিপোর্টার শহীদুল ইসলাম শহীদ, বেধড়ক পিটিয়েছে শিক্ষক, নাট্যকার ও সাংবাদিক আব্দুর রহিম কে। ঘৃণিত এই ঘটনাটি ঘটেছে ৫ অক্টোবর আনুমানিক সকাল ১০ টায় পঞ্চগড় প্রেসক্লাব অফিস কক্ষে।

আব্দুর রহিম পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ৭ অক্টোবর  পঞ্চগড় চীফ জুডিশিয়াল আমলী আদালত-১ পঞ্চগড়ে ৩৪১/৪৪৮/৩২৩/৩২৪/৩০৭/৩৭৯/৫০৬ (২) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার আরজিতে বর্ণিত হয়েছে,‘ ঘটনার দিন আব্দুর রহিম একটি প্রকাশনার ব্যাপারে পঞ্চগড় প্রেসক্লাবের সভাপতির সাথে কথা বলার জন্য প্রেসক্লাবে যান। ওই সময় সভাপতি প্রেসক্লাবে ছিলেন না। আব্দুর রহিম প্রেসক্লাবে প্রবেশ করা মাত্র অভিযুক্ত শহীদুল আব্দুর রহিম কে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ শুরু করেন। এক পর্যায়ে সে এলোপাথারি কিল-ঘুষি, লাথি মারে আব্দুর রহিম মাটিতে পড়ে গেলে তার বুকের উপর লাথি শুরু করে এবং গলা টিপে ধরে এবং রহিম এর পকেটে রক্ষিত পঞ্চাশ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। আব্দুর রহিম এর আত্মচিৎকারে পথচলা ইনসান সাকরেদ নামের এক সাংবাদিক প্রেসক্লাবে প্রবেশ করে আব্দুর রহিম কে রক্ষা করেন এবং প্রেসক্লাবের বাইরে নিয়ে আসেন পরে ঘটনাস্থলে অভিযুক্ত শহীদুলের ছোট ভাই সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ উপস্থিত হয়ে আব্দুর রহিমকে টুকরো টুকরো করে জবাই করে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে অভিযুক্তরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •