মোঃ নেজাম উদ্দিন#
কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের বাঘখালী রেঞ্জাধীন কচ্ছপিয়া বিটের বনভূমিতে অবৈধভাবে নির্মানাধীন ২ টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।
এতে আনুমানিক ১.০ একর সরকারি বনভূমি জবরদখলমুক্ত হলো।
মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) সকালে নতুন তিতার পাড়া এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।
সেই সঙ্গে জবরদখল কারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানিয়েছেন বাঘখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা একেএম আতা এলাহি।
তিনি জানান, কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের পূর্ব তিতার পাড়া মুরা পাড়ার মৃত কালুর ছেলে নুরুল হক বনবিভাগে অবৈধ বসতি গড়ে তুলে। খবর পেয়ে স্থাপনা গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। দখলবাজির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।
রেঞ্জ অফিসার একেএম আতা এলাহী জানান, পাহাড়ে যৌথ অভিযান টের পেয়ে নুরুল হকসহ ১০/১৫ জন সংঘবদ্ধ পাহাড় খেকো পালিয়ে যায়।
নুরুল হকদের বিরুদ্ধে বন আইনে আগেও মামলা রয়েছে।
এদিকে, একইদিন সকালে বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নির্দেশে সদরের পিএমখালীতে সরকারী পিএফ ভূমিতে মুরগির ফার্ম নির্মাণের উদ্দেশ্যে ঢালাইকৃত কংক্রিটের পিলার জব্দ করা হয় এবং বনভূমিতে অবৈধভাবে নির্মাণাধীন একটি পান বরজ ভেঙে দেওয় হয়।
অপরাধীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন।
বিভাগীর বন কর্মকর্তা তহিদুল ইসলাম জানান, উত্তর বনবিভাগের অধীনে বাকখালী রেঞ্জের কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে বাকখালী রেজ্ঞ কর্মকর্তা একেএম আতা এলাহী ও রামু থানার পুলিশ সার্বিক সহযোগিতায় অভিযানে বনবিভাগের জবরদখলকৃত জায়গা থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। দখলের অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •