শাহেদ মিজান, সিবিএন:
কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে, কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহামদ বলেছেন, মৌলিক অধিকার হিসেবে কোনো মানুষ বাস্তহারা হয়ে থাকতে পারে না। তাই প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা বাস্তুহীন মানুষের জন্য আবাসন নির্মাণের উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন। ইতিমধ্যে আশ্রয় প্রকল্পের মাধ্যমে অনেক বাস্তুহীন মানুষের আবাসনের ব্যবস্থা করেছেন। কক্সবাজারের খুরুশ্কুল আশ্রয় প্রকল্প তেমন একটি বড় বাস্তবায়ন। প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগের পূর্ণ বাস্তবায়ন ঘটাতে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষও কাজ শুরু করেছে। বাস্তুহীন জেলার প্রতিটি মানুষের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা করবে কউক। ইতোমধ্যে আবাসনের কাজ শুরু হয়েছে।

সোমবার (৫ অক্টোবর) কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আয়োজিত বিশ্ব বসতি দিবসের সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

কউক চেয়ারম্যান বলেন, আমরা সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে আগাচ্ছি। পুরো জেলাকে নিয়ে মাস্টারপ্ল্যান করার কাজ চলছে। এই মাস্টারপ্ল্যানে জেলা উন্নয়ন নিয়ে করণীয় সম্পর্কে সবকিছু উঠে আসবে। একই সাথে চলমান সমস্যা সমাধানের আলোকপাত থাকবে। মাস্টারপ্ল্যান তৈরি হয়ে গেলে কক্সবাজার হবে পরিকল্পিত উন্নয়নের একটি জেলা।

তিনি আরো বলেন, শুরু থেকেই আমরা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে কাজ করেছি। কক্সবাজারকে অপরিকল্পিত শহরে রূপান্ত ঠেকাতে যা যা করণীয় সব করেছি এবং করে যাচ্ছি। কোনোভাবেই অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনাকে প্রশ্রয় দেয়া হবে না। যাই করেন আইন মেনে, নিয়ম মেনে করতে হবে।

কউক মিলনায়তনে আয়োজিত ‘সবার জন্য আবাসন’ ভবিষ্যতের উন্নত নগর’ এই প্রতিপাদ্যে বিশ্ব বসতি দিবসের তাৎপর্য নিয়ে উক্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। কউক চেয়ারম্যান লে. কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সেমিনারে বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (ডিএসবি) খন্দকার গোলাম শাহনেওয়াজ, জয়বাংলা বাহিনী-৭১ এর কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন চৌধুরী, জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি সহকারি কমিশনার বিধান চন্দ্র, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান নূরুল আবছার, সিনিয়র সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরী, জেলা জাসদ সভাপতি নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল, গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জহির উদ্দীন আহমদ, কক্সবাজার চেম্বারের সভাপতি আবু মোরশেদ চৌধুরী খোকা, নগর উন্নয়ন অধিদফতরের সিনিয়র প্ল্যানার নাজিম, উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম ও কক্সবাজার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ।

দিবসটি উপলক্ষ্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচী পালন করে। সকালে কউক প্রাঙ্গণে ২টি স্টলে আবাসন সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবা প্রদান করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •