ট্যুর অপারেটর ওনার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) এর বার্ষিক সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত

সেন্টমার্টিনে পর্যটক নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন করবে টুয়াক

প্রকাশ: ৪ অক্টোবর, ২০২০ ১২:৩২ , আপডেট: ৪ অক্টোবর, ২০২০ ১২:৪৬

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


নিজস্ব প্রতিবেদক:
সেন্টমার্টিনে রাত্রি যাপন নিষিদ্ধ ও পর্যটক নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন করবে ট্যুর অপারেটর ওনার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক)।

মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচি পালিত হবে। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরার স্মারকলিপি দিবে সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (৩ অক্টোবর) টুয়াকের বার্ষিক সাধারণ সভায় মানববন্ধন, স্মারকলিপি প্রদান ছাড়াও আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সংগঠনটির সভাপতি এম. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে সাধারণ সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন আবুল কাশেম।

এরপর নবাগত সদস্যদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন টুয়াক সদস্যরা।

সভায় স্বাগত বক্তব্য ও বার্ষিক রিপোর্ট পেশ করেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান ওবাইদুল।

বার্ষিক হিসাব নিকাশ পেশ করেন এসোসিয়েশনের অর্থ সম্পাদক মোঃ আরকান।

ভবিষ্যতে এসোসিয়েশনকে আরো গতিশীল ও কার্যকর করার উপর গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা করেন- যুগ্মসম্পাদক মিজানুর রহমান মিল্কী, পর্যটন বিষয়ক সম্পাদক বেলাল আবেদীন ভুট্টু, সদস্য মোঃ নাছির উদ্দিন, আজমল হুদা, সিদ্দিকুর রহমান, রিয়াজ উদ্দিন, নূর মোহাম্মদ মনির, তৈয়ব উল্লাহ, ইকবাল হোসাইন সাজ্জাদ, মমতাজ মিয়া, নবাগত সদস্য শাহীনুল ইসলাম শাহীন, হাফিজুল করিম হাসান।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সদস্য মোঃ আরিফুর রহমান, কাদের খান, মোঃ আবুল কাশেম, মোঃ রিয়াজ তারেক, আবুল আলা ফারুক. ফরহান মানিক, হুমায়ুন ইসলাম, সুমন, মো. হাসান, মো. আমিন-১, মো. আমিন-২, স্বপন শর্মা, জাহেদুল করিম প্রমুখ।

সভায় আগামী ৬ অক্টোবরের মানববন্ধনে পর্যটনসংশ্লিষ্ট সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে আহবান জানিয়েছেন ট্যুর অপারেটর ওনার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

উল্লেখ্য, কক্সবাজার তথা দক্ষিণ চট্টগ্রামের একমাত্র নিবন্ধিত পর্যটনসেবী সংগঠন হলো ‘ট্যুর অপারেটর ওনার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার’ (টুয়াক), যার রেজিঃনং- চট্ট-২৮৩৫। সংগঠনটি পর্যটনের উন্নয়নে কাজ করছে দীর্ঘদিন।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যটন মন্ত্রণালয় ও পরিবেশ অধিদপ্তরের যৌথ সভায় সেন্টমার্টিনে রাত্রি যাপন নিষিদ্ধকরণসহ আরো বেশ কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। যা কক্সবাজারের পর্যটন খাতের জন্য মারাত্মক হুমকি স্বরূপ হিসেবে দেখছে সংশ্লিষ্টরা। গণমাধ্যমে এই সিদ্ধান্ত প্রকাশের পর প্রতিবাদমুখর হয়ে ওঠে সেন্টমার্টিনের বাসিন্দাসহ কক্সবাজারবাসী। এই পর্যটন বিরোধী এমন সিদ্ধান্ত কোনভাবে মানবে না পর্যটনসেবীরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •