রিয়াজুল হাসান খোকন, বাহারছড়া (টেকনাফ):
টেকনাফ উপকূলীয় বাহারছড়া ও উখিয়ার উপকূলীয় জালিয়া পালং ইউনিয়নে সড়ক ও জনপদ বিভাগের (এলজিইডি) সড়কটি খানাখন্দে জর্জরিত। দীর্ঘদিন সংস্কার হচ্ছেনা গ্রামীণ সড়কটি। কয়েক মিটার পরপর খানাখন্দকের সৃষ্টি হয়েছে। গর্তে পড়ে আহতের ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, সড়কটির যেন কোন অভিভাবক নেই!
এলাকাবাসীর অভিযোগ, কয়েক বছর আগে সড়ক ও জনপদ বিভাগ এই সড়কের ছোট ছোট গর্তগুলো খুব দূর্বলভাবে ঢালাই করে ভরাট করেছিল। কয়েকদিনের ব্যবধানে সেই ঢালাই গুলো ওঠে গিয়ে আবার গর্তে সৃষ্টি হয়েছে। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন খানাখন্দক বা গর্তগুলো ভরাট না করার কারণে আরো বড় আকার ধারণ করেছে। এমনকি কয়েক মিটার পরপর গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যেখানে গাড়ি নিয়ে এই এলজিইডি সড়কে মানুষের চলাফেরা করা অনেক কষ্ট সাধ্য এবং ঝুঁকিপূর্ণ বলে স্থানীয়রা জানান। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে এই সড়কটি যেন কতৃপক্ষ সংস্কার করে তার দাবী জানান দুই ইউনিয়নের এলাকাবাসী।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার জেলা এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ অনিসুর রহমান জানান, উখিয়ার কোর্টবাজার থেকে শুরু করে টেকনাফ শহর পর্যন্ত প্রায় ৬২ কিলোমিটার এলজিইডি সড়ককে দুই ভাগে ভাগ করে টেন্ডারের পর্যায়ে আছে। আগামী নভেম্বরের শেষের দিকে বা ডিসেম্বর মাসের শুরুর দিকে প্রথম পর্যায়ের সংস্কার কাজ শুরু হবে বলে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •