মহেশখালী প্রতিনিধি:
মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের মাঝের পাড়া হাফেজ খানায় ৩ জন ছাত্রকে দস্তারবন্দী ও পাগড়ী প্রদান করা হয়েছে।
৩০ সেপ্টেম্বর দুপুর ২ ঘটিকার সময় হাফেজ খানা মিলনায়তনে এক দস্তারবন্দী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের পাগড়ী প্রদান করা হয়। উত্ত হেফজ সমাপ্ত ও দস্তারবন্দী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা আকতার হোসাইন। বিশেষ অতিথি মাওলানা ওসমান গনি, হাফেজ মাওলানা আবুল কাশেম, মাওলানা আবু ছৈয়দ নূরী,
হাফেজ শহীদ উল্লাহ, হাফেজ খানার শিক্ষক হাফেজ মোঃ নুরুল ইসলাম, আলহাজ নুরুচ্ছবি হেলালির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দস্তারবন্দী অনুষ্ঠানে অভিভাবকদের মধ্যে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফনাক ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রুহুল আমিন বাবুল, সাংবাদিক ফরিদুল আলম দেওয়ান ও হোয়ানক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক
মাস্টার গোলাম মোস্তফা।
পূর্ণাঙ্গ হাফেজ হয়ে যাদেরকে পাগড়ী প্রদান করা হয় তারা হলেন, হোয়ানকের জামাল পাড়া গ্রামের আলহাজ্ব রুহুল আমিন বাবুলের পুত্র হাফেজ মোঃ ফাহিম চৌধুরি বাবুল, কালারমারছড়া ইউনিয়নের ছামিরাঘোনা গ্রামের জালাল হোসেনের পুত্র হাফেজ মোঃ আরিফুল উল্লাহ ও হোয়ানকের জামাল পাড়া গ্রামের সরওয়ার কামাল এর পুত্র শাহেদ কামাল। উল্লেখ্য ৩ কিশোর হাফেজ মাত্র ১১ থেকে ১৫ বছর বয়সে তারা কোরআনে হাফেজের যোগ্যতা অর্জন করেন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •