প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ
জলবায়ু পরিবর্তন রোধ করতে এ্যাকশন ও ন্যায়বিচারের দাবিতে গ্লোবাল স্ট্রাইক করেছে সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট, হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরাম ও কক্সবাজার এর কুতুবদিয়া পাড়ার জলবায়ু উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠী।

শনিবার কক্সবাজার পৌরসভার সমিতি পাড়া বাজার এলাকায় সিইএইচআরডিএফ আয়োজিত ক্যাম্পেইনে সভাপতিত্ব করেন সিইএইচআরডিএফ এর প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া।

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে দীর্ঘস্থায়ী বন্যা, খুলনা ও উপকূলীয় অঞ্চলে বেঁড়িবাধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ, কুতুবদিয়া ও মহেশখালীর মাতারবাড়িতে জলাবদ্ধতা, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ভাঙ্গণ, কুতুবদিয়া পাড়ার উদ্বাস্তুদের আশ্রয়ণ ইত্যাদি সংকট বিষয়ে এ সময় কথা হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তন একটি সংকট হিসেবে উপস্থিত হয়েছে। এটি শুধু যে দরিদ্র ও উন্নয়নশীল রাষ্ট্রগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে তা নয় বরং উন্নত রাষ্ট্রগুলোর উপরও ব্যাপক প্রভাব ফেলছে।

তারা বলেন, বাংলাদেশ জলবায়ু সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম্ বাংলাদেশকে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে যে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার কথা তা পাচ্ছে না।

সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনটির প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া বলেন, বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বাড়ছে। বাংলাদেশে পুনঃপুন প্রাকৃতিক দূর্যোগ যেমন ঘূর্ণিঝড়, বন্যা, খরা, নদীভাঙ্গণ বাড়ছে। বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী নয় এমন একটি দেশ৷ কিনৃতু শিল্পোন্নত দেশগুলোর কার্বন নিঃসরণ বাংলাদেশকে দিনদিন ভালনারেবল করে ফেলছে।

তিনি আরো বলেন, এমতাবস্থায় বাংলাদেশ কে জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় ক্ষয়ক্ষতির উপর ভিত্তি করে প্রয়োজনীয় তহবিল বিনা শর্তে যেন দেয়। সেজন্য তিনি বিশ্বনেতাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

চলমান বন্যা মোকাবেলায় সরকার ও বিশ্বনেতাদের তিনি স্থায়ী সমাধান নিতে আহবান জানান।

এতে অন্যান্যের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন সিইএইচআরডিএফ এর পরিচালক(কো-অর্ডিনেশন এফেয়ার্স) আব্দুল মান্নান রানা, পরিচালক(প্রোগ্রাম) রুহুল আমিন, পরিচালক(ফোরাম ও সার্কেল) রমজান আলী, মূখ্য সমন্বয়ক রফিকুল ইসলাম, মিডিয়া সম্পাদক নজুম উদ্দিন, প্রাইম এসিস্ট্যান্ট সুলতানা জেসমিন, সদস্য মোঃ আরমান প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •