ফরিদুল আলম দেওয়ান, মহেশখালী:
মহেশখালী-কক্সবাজার নদী পথে দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটলে নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। গতবছর ২০১৯ সালে পরপর বেশ ক’টি দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে স্থানীয় প্রশাসনিক নির্দেশনায় স্পিড বোট যাত্রীদের লাইফ জ্যাকেট পরা বাধ্যতামূলক করেছিলেন। কিন্তু এ ব্যবস্থা বেশি দূর যাইনি। মাত্র কয়েক মাসের ভেতরে গায়েব হয়ে যায় যাত্রীদের লাইফ জ্যাকেট পড়া। যাত্রী আর চালক উভয়েরই অসচেতনতায় জীবন রক্ষাকারী এই ব্যবস্থা ভেস্তে যায়। সম্প্রতি মহেশখালী চ্যানেলে নৌ-দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম কলেজের দর্শন বিভাগের অনার্স পড়ুয়া ছাত্র আশরাফুলের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বুধবার (২৩সেপ্টেম্বর) থেকে মহেশখালী চ্যানেল স্পিড বোটে যাত্রী পারাপারে দূর্ঘটনার সময় ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিত করতে মহেশখালী জেটি ঘাটে সকল নৌ-যানে যে বাধ্যতামূলকভাবে লাইফ জ্যাকেট রাখার নির্দেশনা জারি করেছেন মহেশখালী উপজেলা প্রশাসন। বিষয়টি জানিয়েছেন মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান।
মহেশখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুইচিং মং মারমা জানান, আজ থেকে মহেশখালী জেটি ঘাটে নৌ-যানসমূহে লাইফ জ্যাকেট রাখা হয় কিনা এবং যাত্রার পূর্বে যাত্রীদের দেয়া হয় কিনা তা সরজমিনে পরিদর্শন করতে তিনি মহেশখালী জেটি ঘাটে উপস্থিত হয়েছেন।
অপরদিকে যাত্রীদের নির্বিঘ্নে চলাচল করতে জেটির উপর গড়ে উঠা অস্থায়ী ঝুপড়ি দোকান গুলো উচ্ছেদ করা হবে। দোকান মালিকদেরকে আজকের মধ্যে সরিয়ে নিতে নির্দেশ প্রদান করেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •