মোঃ ফারুক , পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়ায় স্বামী মোঃ আলমগীরের হাতে স্ত্রী সালমা আক্তার (১৫) নিহত হয়েছে।

নিহত সালমা টইটং ইউপির পন্ডিত পাড়া এলাকার বাদশা মিয়ার মেয়ে ।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ঘাতক মোঃ আলমগীরকে চট্টগ্রাম পাঁচলাইশ থানা পুলিশ আটক করেছে। তিনি বারবাকিয়া পাহাড়িয়াখালী এলাকার জাফর আলমের ছেলে। বুধবার সকাল সাড়ে ৫টা এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সালমার মা মর্তুজা বেগম বলেন, গত তিনমাস আগে দা-বাহিনীর প্রধান নাছিরের সহযোগিতায় কিশোরী মেয়েকে জোরপূর্বক নিয়ে যায় ডাকাত আলমগীর। নিয়ে যাওয়ার পর বেশ কয়েকবার মারধর করে আহত করে। মারধরের বিষয়টি আমি পেকুয়া থানায় অবগত করলেও কোন উদ্যোগ নেয়নি থানা পুলিশ। সর্বশেষ গত শনিবার মেয়েকে গোপাঙ্গে লোহার রড় দিয়ে আঘাত করে। একই সাথে সর্বশরীরে পিটিয়ে আহত করে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। রবিবার চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। বুধবার মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়েন। তাকে হত্যা করা হয়েছে এমন তথ্য পাঁচলাইশ থানার ওসিকে অবগত করলে তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

পেকুয়া থানার এসআই আতিকুর রহমান বলেন, গত রবিবার সালমাকে চট্টগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বুধবার ভোরে মারা যায়। স্বামী আলমগীরকে পাঁচলাইশ থানায় আটক করেছে বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। পেকুয়া থানায় মামলা হওয়ার পর এঘটনায় গ্রেফতার দেখানো হবে।

পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) মাইন উদ্দিন জানায়, কিশোরী সালমার লাশ চমেক হাসপাতালে রয়েছে। ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

ছবি :স্বামীর হাতে নিহত কিশোরী সালমা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •