মোহাম্মদ উল্লাহ, চকরিয়া:
চকরিয়ায় আগুনে পোড়া আসমাউল হুসনা (৮) নামের এতিম শিশুকে চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা প্রদান করেছেন চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকিত হোসেন সাজিব। মঙ্গলবার উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের মহাজের পাড়ার ফুফুর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে দগ্ধ শিশুর হাতে এসব টাকা তুলে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, আসমাউল হুসনার মা মারা গেছে ৫ বছর আগে। তার পিতা আরেকটি বিয়ে করে অন্যত্র সংসার পাতেন। তার কোন অভিভাবক না থাকায় ফুফুর বাড়িতে থাকেন। সেখানে আগুনে পুড়ে দগ্ধ হয় আসমা। ফুফু কোন রকম চিকিৎসা করলেও টাকার অভাবে পুরো চিকিৎসা করাতে না পারায় তার অবস্থা খারাপ হতে থাকে।

আসমাকে নিয়ে পথে ভিক্ষা করতে গেলে বিষয়টি হরবাং এলাকার বাসিন্দা মো. মিরান নামের এক যুবকের দৃষ্টিগোচর হয়। সে ছবিসহ আসমার দুর্দশার কথা ফেসকবুকে শেয়ার করার পর ভাইরাল হয়। পরে চকরিয়ার বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজন তার চিকিৎসা কাজে সহায়তা করতে এগিয়ে আসেন।

চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকিত হোসেন সজীব বলেন, স্ট্যাটাস দেখে যোগাযোগ করলাম। আমার প্রবাসী বড় ভাই অসুস্থ আসমার জন্য ১০টাকা পাঠিয়েছেন, টাকাগুলো তাদের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

চকরিয়া পৌরসভার হালকাকারা এলাকার শাহাবউদ্দিন ৫হাজার, চকরিয়া থানার এসআই মো. সবুর ২ হাজার ও আবদুল্লাহ আল মাসুদ ৫শত টাকা শিশু আসমার চিকিৎসার জন্য সহায়তা করেছেন।

একইভাবে চিকিৎসা খরচ বাবদ সার্বক্ষণিক সহায়তার কথা দিয়েছেন চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল। আগামী বৃহস্পতিবার চকরিয়া ইউনিক হাসপাতালে আসমার অপারেশন হওয়ার কথা রয়েছে।

টাকা প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা জামশেদ উদ্দিন, মোহাম্মদ সুজন,মোহাম্মদ মুবিন, রিদওয়ান পারভেজ, সাহারবিল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সাদেক,যুবনেতা মেহেদী হাসান নাহিদ, রাকিব, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা মিরানসহ প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •