১৯৬২ এর শিক্ষা আন্দোলন ও ১৭ সেপ্টেম্বর শহীদ হওয়া বাবুল,গোলাম মোস্তফা ও ওয়াজিউল্লাসহ নাম না জানা অসংখ্য শহীদদের স্মরণে মহান শিক্ষা দিবস পালিত হয়ে আসছে।
গণমুখী শিক্ষার অধিকার প্রতিষ্ঠার এই আন্দোলন পরবর্তীতে মুক্তিযুদ্ধের ক্ষেত্র তৈরী করেছে। সেই শিক্ষার অধিকার আদায়ের মহান আন্দোলনের আদর্শের অনুসরণে কক্সবাজার এ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার দাবী নিয়ে কাজ করা কক্সবাজার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই পরিষদের আহবায়ক ও মুখপাত্র মোঃ মোয়াজ্জম মোর্শেদ শিক্ষা দিবসে এক বিবৃতিতে জানান,
কক্সবাজার এ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা এখন অপরিহার্য। কক্সবাজার-৩ আসনের মাননীয় এমপি সায়মুম সরওয়ার কমল এমপি মহোদয় জানিয়েছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে মত প্রকাশ করেছেন কক্সবাজারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য। শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যরিষ্টার মহিব্বুল হাসান নওফেল ও কক্সবাজারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এর কাজ চলমান বলে জানিয়েছিলেন কিন্তুু বর্তমানে কক্সবাজারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য কোন কার্যক্রমের আপডেট পাওয়া যাচ্ছে না এবং আমরা প্রস্তাবিত কক্সবাজারে এ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এর দ্রুত অনুমোদন ও বাস্তবায়ন চাই। আমাদের কক্সবাজার এখন সরকারিভাবে উচ্ছ ব্যয়বহুল নগরী এবং পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভাবনা। পৃথিবীর এরকম পর্যটন নগরী গুলোর দিকে খেয়াল করলেই আমরা দেখতে পাই তাদের পর্যটননগরী গুলোতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এ স্বয়ংসম্পূর্ণ।
আরেকটি দিক হলো জাতিসংঘের রিফিউজি ফান্ডের ২৫% হোস্ট কমিউনিটির জন্য বরাদ্দ থাকে, সরকার চাইলে এই বরাদ্দ থেকে সহজেই অতি দ্রুত একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কক্সবাজারবাসীকে দেশের স্বার্থে দ্রুত প্রতিষ্ঠা করে দিতে পারে।
কক্সবাজারে নারী উচ্ছ শিক্ষার হার অনেক পিছিয়ে এর মূল কারণ কক্সবাজারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় না থাকা ও অনেক দূরবর্তী জেলাতে হওয়ায় নারীশিক্ষায় পরিবারের অনীহা ও বাঁধা। তাই জেলায় শিক্ষাক্ষেত্রে নারী ও পুরুষ সমতা আনয়নের জন্য ও দ্রুত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা অতি আবশ্যক।
আমাদের বিস্তৃত সমৃদ্ধ সমুদ্র নিয়ে গবেষণা ও উদ্ভাবন এবং বিভিন্ন তথ্য ও উপাত্তের ভিত্তিতে ভবিষ্যৎ করণীয় ও ব্লু ইকোনমি সৃষ্টি নিয়ে কক্সবাজারে উচ্চশিক্ষার জন্য ও দ্রুত মানসম্পন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা অতি গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরী।
সর্বশেষ ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে বর্তমান সরকারের কক্সবাজারে নেওয়া বহুমুখী উন্নয়নের মেঘা প্রকল্পগুলোতে অংশগ্রহণ ও ভুমিকা রাখতে কক্সবাজারের দক্ষ জনগোষ্ঠী অবশ্যই দরকার। সেই দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরীর কারখানা হলো বিশ্ববিদ্যালয়। আজকে মহান শিক্ষা দিবসে দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরীর কারখানা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দ্রুত অনুমোদন ও বাস্তবায়ন চেয়ে স্লোগানে স্লোগানে জানায়,
“দাবি মোদের একটাই
কক্সবাজারে দ্রুত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই”।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •