ইমাম খাইরঃ
কক্সবাজার শহরের কলাতলী পয়েন্ট সংলগ্ন সাগর পাড়ের বালুচরে জেগে ওঠা ‘সাগর লতা’ কেটে তৈরি করা হয়েছে স্থাপনা। সেখানে খাবার প্রতিষ্ঠান সী-ল্যাম্প বীচ ক্যাফের ব্যবসায়িক চেয়ার, টেবিল ও ছাতা বসানো হয়েছে। কাস্টমারদের বেপরোয়া হাঁটাচলার কারণে মরে গেছে অনেক সবুজ লতা।
অথচ, তার একপাশে পরিবেশ অধিদপ্তরের টাঙ্গানো সাইনবোর্ডও শোভা পাচ্ছে।
বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সরেজমিন পরিদর্শনে গেলে স্থানীয়দের দেয়া অভিযোগের সত্যতা মেলে।
দেখা গেছে, সী-ল্যাম্পের উত্তর দিক থেকে দক্ষিণ মাথা পর্যন্ত বালুতট দখলে নেয়া হয়েছে। উপড়ে ফেলা হয়েছে বালুচরে জেগে ওঠা সবুজ লতা। তার উপর চেয়ার টেবিল বসিয়ে চলছে দেদারসে ব্যবসা।
স্থানীয়রা বলছে, সাগর পাড়ে দখলবাজির কারণে হুমকির মুখে পড়েছে পরিবেশ ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য।
এ প্রসঙ্গে পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক শেখ মুহাম্মদ নাজমুল হুদা জানান, সাগর পাড়ের ভারসাম্য রক্ষা ও বালু ধরে রাখার জন্য সাগর লতাগুলো খুবই কার্যকর ভূমিকা রাখে। তা উপড়ে ফেলে দখল করা সম্পূর্ণ পরিবেশ আইনের লংঘন।
যারা একাজ করেছে তারা খুব অন্যায় করেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •