সংবাদদাতাঃ
কক্সবাজার সদরের ইসলামপুর কৈলাসেরঘোনার ইজারাদারদের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে নতুন অফিস বাজারের রিফাত সড়কে সভায় বক্তারা বলেন, গত ৯ সেপ্টেম্বর নতুন অফিস বাজার আল-আমিন সুপার মার্কেটের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তাদের দেয়া বক্তব্যগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। তাতে বাস্তবতার কোন মিল নাই।
বক্তরা বলেন, কৈলাসেরঘোনা পরিচালনা কমিটি থেকে আমরা বর্ষায় মাছ চাষের জন্য ইজারা নিয়েছি প্রতি কানি ১০হাজার ১০০টাকা করে। তার মধ্যে আমরা ৫ হাজার টাকা করে দিয়েছি। হঠাৎ করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়ে গেলে আমরা মাছ সরবরাহ করতে পারি নাই।
মাছের দাম আগের চেয়ে অনেক কমে যাওয়ার কারণে জমির মালিকদের টাকা দিতে একটু দেরি হচ্ছে।
তাড়াতাড়ি টাকা পরিশোধ করতে আমরা চেষ্টা করছি। এটার সাথে ভূমি দখলের কোন সম্পর্ক নেই।
আমাদের মাঝে অনেক জমির মালিক আছে আমরা কোন দিন কারো জায়গা দখলে যাই নি। আমাদের জমির মাঝে কিছু জায়গা খাস জমি রয়েছে যেগুলো আমরা অনেক বছর ধরে ভোগ করে আসছি।
বক্তারা আরো বলেন, আমাদের কৈলাসেরঘোনা পরিচালনা কমিটি ও ইজারাদারদের সাথে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম কোন রকম জড়িত নেই।
গত ৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভাতে চেয়ারম্যান জড়িত বলে দেয়া বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবি করেন বক্তারা।

প্রতিবাদ সভায় ৪টি দাবি পেশ করা হয়।
১.গোল্ডেন ফার্মের ভিতরে বন্ধ করা নৌকা চলাচলের খাল খুলে দেওয়া
২. উত্তরের ভরা খালের ১৫ কাণি জমির খাজানা আদায়
৩. মসজিদের ৮ কাণি জমির পুনরুদ্ধার
৪. অপপ্রচারকারিদেরকে দ্রুত গ্রেপ্তার।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন – এনাম, জুবাইর, মৌলানা মনছুর, সাবেক মেম্বার নুরুল আজিম, ছৈয়দ আলম, জসিম উদ্দীন, ইকবাল, বাবুল। এছাড়া সভায় এলাকাবাসী বক্তব্য রাখেন।
এলাকাবাসী এই ধরনের অপপ্রচারকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •