cbn  

সংবাদদাতা:

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের দক্ষিণ জানার ঘোনার এক পরিবারে হামলা করেছে চিহ্নিত ভুমিদস্যুরা। জনৈক ফরিদের জমি দখলে নিতে ব্যর্থ হয়ে একদল যুবক শনিবার রাতে ওই হামলা চালিয়েছে। হামলায় আহত হয়েছে বয়োবৃদ্ধ নারীসহ পরিবারের ৫/৬ জন। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই এলাকার মৃত হাজী ইছহাকের পুত্র ফরিদুল আলম প্রকাশ মধুর সাথে প্রতিবেশি মোহাম্মদ সেলিমের পুত্র আবদুল করিম গংয়ের সাথে জমি-বসতভিটা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে আদালতে মামলাও চলমান রয়েছে। নিম্ম আদালত ফরিদুল আলম প্রকাশ মধুর পক্ষে রায়ও দিয়েেেছ। কিন্তু আবদুল করিম গং রায় মেনে না নিয়ে উচ্চ আদালতে যায়। সেখানে মামলা চলমান রয়েছে।
এ অবস্থায় ১২ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত ১০ টার দিকে সেলিমের পুত্র আবদুল করিমের (৩২) নেতৃত্বে তার অন্য ভাই আবদুর রহিম (২৮), আবদুল আজিজ (২২) ও তাদের মামা মৃত খলিলুর রহমানের পুত্র আবদুর শুক্কুর (৩৯)সহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন অতর্কিত ফরিদুল আলম প্রকাশ মধুর বাড়িতে ঢুকে মধু, তার বৃদ্ধ মা, স্ত্রী ও সন্তানদের উপর দা, কিরিচ, রাম দা, লোহার রড় ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে মধুর স্ত্রী মোশারেফা খানম (৩৫) এর মাথার চুল কেটে দেয়। মধুর বৃদ্ধ মাকে ব্যাপক মারধর করে। তাদের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করলে পোলা জখম হয়। পরে ঘরে টিভি, ফ্রিজ, দরজা, জানালা, ঘেরাবেড়াসহ মূল্যবান আসবাবপত্র ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাট চালায়।
গুরুতর আহত মধুর মা উম্মে কুলসুম (৮০), স্ত্রী মোশারেফা খানম (৩৫) কে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •