আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :
রাঙামাটি শহর থেকে চুরি যাওয়া মোটর সাইকেল রাঙ্গুনিয়া থেকে উদ্ধার করেছে রাঙামাটির কোতয়ালী থানা পুলিশ। এই ঘটনায় মূল হোতাসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কবীর হোসেন। আটককৃতরা হলো শহরের তবলছড়ির স্বর্ণটিলা এলাকার বাসিন্দা সিএনজি চালক ফজলে করিম পুতুল ওরফে মেহেদী, ওমদামিয়া হিল এলাকার বাসিন্দা মোঃ মাসুম, আমিনা পাহাড়ের বাসিন্দা আনিস ও রাঙ্গুনিয়া থেকে আটককৃত মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেট চক্রের অন্যতম হোতা আরাফাত শরীফ ইমন। কোতয়ালী থানার ওসির নির্দেশনানুসারে এসআই সাইফুল ইসলাম তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে শুক্রবার রাতে ও শনিবার সকালে অভিযান পরিচালনা করে এই সিন্ডিকেট চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করেছেন বলে জানা গেছে।
থানা সূত্র জানিয়েছে, চলতি মাসের গত ৪ই সেপ্টেম্বর শহরের তবলছড়িস্থ স্বর্ণটিলা এলাকার বাসিন্দা শুভাসিস বড়–য়ার নিজ বাসা থেকে তার ব্যবহৃত হিরো হোন্ডা মোটর সাইকেলটি চুরি হয়। সেদিনই বিষয়টি নিয়ে কোতয়ালী থানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। মামলা নাম্বার-১, তারিখ: ০৪/০৯/২০২০ইং।
অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। পরবর্তীতে এলাকার বেশ কিছু সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করে এবং স্থানীয়দের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে প্রথমে পুতুলকে আটকের পর তার স্বীকারোক্তিনুসারে আরো দুইজনকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা তিনজনই জানায়, মোটর সাইকেলটি চুরি করে পাশ^বর্তী রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চিহ্নিত সন্ত্রাসী আরাফাত শরীফ ইমনের কাছে বিক্রি করে দেয়। পরে রাঙ্গুনিয়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সেখান থেকে ইমনকে গ্রেফতার করার পাশাপাশি তার কাছ থেকে গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। মূলতঃ ইমনের মাধ্যমেই প্ররোচিত হয়ে রাঙামাটি থেকে বেশিরভাগ মোটর সাইকেল চোর গাড়িগুলো চুরি করে রাঙ্গুনিয়া নিয়ে ইমনের কাছে বিক্রি করে দেয়। এই ঘটনায় আসামীদের বিরুদ্ধে দন্ডবিধি ৩৭৯ ধারায় দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাদেরকে তিনদিনের রিমান্ডের আবেদন আদালতে জানানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •