মো. ফারুক , পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলাধীন মগনামা ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কর্মশালার মধ্য দিয়ে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের পথচলা শুরু হয়েছে।

রবিবার সকাল ১০টার দিকে মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিমের সভাপতিত্বে এ কর্মশালা শুরু হয়।

উক্ত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল আজম ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাইন উদ্দিন।

চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম বলেন, সাবমেরিন ঘাটির কল্যাণে মগনামা এখন সারা বাংলাদেশে একটি পরিচিত নাম। পার্শ্ববর্তী দ্বীপাঞ্চল উপজেলা কুতুবদিয়ার দ্বার এই ইউনিয়ন। যার প্রেক্ষিতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে বিট পুলিশিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। পেকুয়া থানা প্রশাসন ও মগনামা ইউপি কার্যালয়ের ব্যাপক তৎপরতায় বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া মগনামার আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানান চেয়ারম্যান শরাফত।

ওসি কামরুল আজম বলেন, বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া পুরো উপজেলার আইন শৃঙ্খলা ইনশাল্লাহ স্বাভাবিক আছে। প্রতিটি ইউনিয়নে আইনশৃঙ্খলাকে আরো বেশি স্বাভাবিক রাখতে ও সেবা জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছাতে বিট পুলিশিং কার্যকর ভুমিকা রাখবে বলে আশা করি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজী মতিউল ইসলাম বলেন, মানুষের দোরগোড়ায় পুলিশি সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বিট পুলিশিং এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এ পুলিশিংয়ের মাধ্যমে তৃণমূলের মানুষ ও পুলিশের মধ্যে দুরত্ব ঘোচাবে। এ ক্ষেত্রে আমার পুলিশ সদস্য যদি কোন অন্যায় করে থাকে তাহলে সংকোচ ছাড়ায় আমাদের অবগত করুণ, আমরা ব্যবস্থা নিব। আর আমিও যদি কোন অন্যায় করে থাকি আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করুণ। আমি চাই স্বচ্ছতার সহিত বিট পুলিশিং কার্যক্রম চলুক।

এর আগে মগনামা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে এ কার্যক্রম ও আলোচনা সভার উদ্বোধন ঘোষণা করেন চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলাম। এ সময় স্কুলের প্রধান শিক্ষকগণ, মাদ্রাসার অধ্যক্ষগণ, মসজিদের ইমামগণ, স্থানীয় ইউপি সদস্য ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •