কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন অনলাইন, স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় গত ২ ও ৩ সেপ্টেম্বর “ডুলাহাজারা সার ডিলারদের অনিয়মে তিন হাজার কৃষকের ভোগান্তি” শিরোনামের একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। সংবাদে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনে কৃষক ও সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে চকরিয়া উপজেলায় ডুলাহাজারা ও মালুমঘাট নামের দুটি বাজার রয়েছে। বাজার দুটি সব ওয়ার্ডের মাঝখানে হওয়ায় সমগ্র জনসাধারণ বাজারে এসে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি কৃষকদের চাহিদা মতো সার, বীজ, কীটনাশক নিয়ে যেতে কোন ধরনের সমস্যা হচ্ছে না। ভৌগলিক অবস্থান হিসেবে এ ইউনিয়নের ১, ২, ৩ নং ওয়ার্ডের কৃষক মালুমঘাট বাজার এবং ৪, ৫, ৬, ৭, ৮, ৯ -এই ৬ টি ওয়ার্ডের প্রান্তিক কৃষকরা ডুলাহাজারা বাজারে তাদের কৃষি পণ্যগুলো বিক্রি করতে আসছে। পরে চলে যাওয়ার সময় তাদের প্রয়োজনীয় সার, বীজ, কীটনাশক কিনে নিয়ে যেতে অত্যন্ত সহজ হচ্ছে। আমারা সরকারি নির্ধারিত মুল্যে সার বিক্রি করে আসছি। সেই আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সাল হতে আজ পর্যন্ত কোনদিন কোন কৃষক আমরা ডিলার গনের বিরুদ্ধে দেয় নি। বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা এক ইঞ্চি জমি যেন খালি পড়ে না থাকে আমরা কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করছি। কিন্তু একজন অসাধু সার ব্যবসায়ী খুচরা সার ডিলার নিয়ে আমাদের (সফল খুচরা সার ডিলার) উপর বদনামের কালিমা লেপন করছে। জনৈক বিজয় এন্টারপ্রাইজ মালিক বিজয় নিশান দে প্রতিনিয়ত সকাল কিংবা রাতের আন্ধারে চান্দের গাড়িতে করে পাহাড়ি অঞ্চলে প্লেইন ডিস্ট্রিক্ট টু হিলট্রেক্ট এরিয়া সার পাচার করছে বলে আমরা তাকে ডুলাহাজারা ইউনিয়ন সার ডিলার সমিতি থেকে বাদ রেখেছি। সরেজমিনে তদন্ত করলে দেখা যাবে যে, বান্দরবান পার্বত্য জেলার লামা উপজেলার ৩ নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে যে সমস্ত সার ব্যবসায়ী রয়েছে তাদের চড়া মূল্যে সার পাচার করে আসছে। যার প্রমাণস্বরূপ পাচার কালে মোবাইলে তোলা ছবি আমাদের কাছে আছে। জনৈক ব্যক্তি ২০১৯ সালে নিন্ম মানের ৪০০ বস্তা ইউরিয়া সার পাচার কালে উপজেলা প্রশাসন জব্দ করে তার গোডাউন সিলগালা করে দেয়। এবং তার বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়। এরপরও গত একমাস আগে বরাদ্দ বিহীন এক গাড়ি (বড় টাটা ট্রাক) সার চকরিয়া থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে মুচলেকা দিয়ে নিয়ে আসতে হয়। সেই ভদ্র ব্যবসায়ী আমরা খুচরা ডিলার গনের বিরুদ্ধে আজেবাজে মিথ্যা ভিত্তিহীন বানোয়াট তথ্য দিয়ে অনলাইন ও দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রচার করে আসছে। আমরা উপজেলা কৃষি অফিসে আমাদের বিরুদ্ধে নালিশ দিয়ে, দরখাস্ত দিয়ে অহেতুক আমাদেরকে হয়রানি করা হয়। এ অবস্থা থেকে বাঁচতে আমরা চকরিয়া উপজেলা সার, বীজ, কীটনাশক মনিটরিং উপদেষ্টা জনাব আলহাজ্ব জাফর আলম (বিএ অনার্স এমএ) এমপি মহোদয় ও মনিটরিং কমিটির সভাপতি নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সদস্য সচিব উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। তার সহযোগিতায় বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগে আনা ডুলাহাজারা খুচরা সার ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন সংবাদ নিয়ে কাউকে বিব্রত না হতে অনুরোধ করছি।

বিবৃতি প্রদানকারী
খুচরা সার ডিলারবৃন্দ
ডুলাহাজারা ইউনিয়ন
চকরিয়া, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •