কামাল শিশির,রামু :

নিজের অপকর্মের জন্য বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাস এর সাজানো মামলায় আটক হয়ে নির্মমভাবে নির্যাতনের শিকার, সিনিয়র সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খাঁন এখনও কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ।

টানা ১১ মাস ৫ দিন জেলে থাকার পর মুক্ত নির্যাতিত এই সাংবাদিকের সব প্রকার চিকিৎসা চলছে।

সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে অবিরাম লিখনী আন্দোলনের কারণে নিজের রক্ত দিয়ে টেকনাফ -কক্সবাজার বাসীর শান্তি ফিরিয়ে আনা প্রতিবাদী এই সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খাঁন কে হাসপাতালে দেখতে যান কক্সবাজার-রামু আসনের সংসদ সদস্য ও তথ্য মন্ত্রণালয় সংসদীয় কমিটির সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি।

এসময় তিনি নির্যাতিত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খাঁনের সার্বিক চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। এমপি কমল এসময় তার প্রতি ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত হামলা ও মামলায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, খুব শিগ্রই সরকার জড়িতদের কঠিন শাস্তির পাশাপাশি সব মিথ্যা মামলা প্রত্যহার করে নেবেন।

কারণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একমাত্র স্বাধীন ও মুক্ত সাংবাদিকতার প্রতি সবসময় শ্রদ্ধা শীল। তিনি সকল সাংবাদিক ও সংবাদ পত্রের কল্যানে বরাবরই সদয়।
রবিবার রাত ৮ টায় এমপি কমলের সাথে এসময় হাসপাতালে অর্ধ শতাধিক বিভিন্ন দলীয় নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য কারামুক্তির পর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খাঁন কে একনজর দেখতে সকাল সন্ধ্যা প্রতিনিয়ত ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষী দের ভীড় সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে কতৃপক্ষ।

ফরিদুল মোস্তফা এ সময় তার উপর নির্যাতনের বিষয়ে নানা কথা বলেন এবং তার বিরুদ্ধে দ্বায়ের করা মিথ্যা মামলা গুলো প্রত্যাহারের জন্য সরকারের নিকট আকুল আবেদন জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •