আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ব্যাপারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ছয় রাজনীতিবিদকে অযোগ্য ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। এসব রাজনীতিবিদের জাতীয় পরিচয়পত্রে সমস্যা রয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বসবাস এবং তাদের বেশিরভাগই মুসলমান। ২০১৭ সালের দিকে রাষ্ট্রীয় মদদে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর গণহত্যা ও ব্যাপক নির্যাতন চালানো হয় যার কারণে লাখ লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান দেশ ছেড়ে প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়।

আগামী ৮ নভেম্বর মিয়ানমারে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্তিা করার জন্য অন্তত একডজন রোহিঙ্গা মুসলমান আবেদন জানিয়েছেন। এর মধ্যে অন্তত ছয়জনকে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছে। মিয়ানমারের সরকারি কর্মকর্তারা দাবি করছেন, এসব রাজনীতিক প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছেন যে, তাদের মা-বাবা মিয়ানমারের নাগরিক ছিলেন। মিয়ানমারের নির্বাচনী আইন অনুসারে প্রার্থীর মা-বাবাকে মিয়ানমারের নাগরিক হওয়া বাধ্যতামূলক।

আবদুর রশীদ নামে একজন প্রার্থী জানান, সরকারিবাবে যেসব কাগজপত্র চাওয়া হয়েছে তার সবই সরবরাহ করা হয়েছে তারপরও তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে।#

সুত্র :  পার্সটুডে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •