বলরাম দাশ অনুপম :
মহাসড়কের কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনাল থেকে সদর উপজেলা গেইট পর্যন্ত মানুষের দুর্ভোগ যেন থামছে না। ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় এবং সড়কের বেহাল অবস্থার কারণে এই স্থানে অল্প বৃষ্টিতেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতার। বৃষ্টি থেমে গেলেও জমে থাকে হাঁটু পরিমাণ পানি। এতে করে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় যানবাহন চালক ও পথচারীদের। শুধু তাই নয় এই সড়ক দিয়ে কোন মৃত ব্যক্তি দাফন করতে নিয়ে যেতেও চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় মৃত ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজন ও দাফন-জানাযায় অংশ নেয়া লোকজনদের। এমনই ঘটনা ঘটেছে রবিবার (২৩ আগস্ট) সকাল ৯টা ৫০ মিনিটের দিকে।

জানা যায়-শনিবার বিকেলে কক্সবাজার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের উত্তর ডিককুল গ্রামের বাসিন্দা কক্সবাজার রুপালী ব্যাংকের কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন ও চট্টগ্রাম সরকারী সিটি কলেজের প্রভাষক মোঃ মিজানুর রহমানের পিতা আবদুল হক মারা যান। পরে রবিবার সকাল ৯টা ৫০ মিনিটের দিকে আবদুল হকের লাশ দাফন ও জানাযার জন্য স্থানীয় বাস টার্মিনালস্থ কেন্দ্রীয় কবরস্থান মাঠে নিয়ে যাওয়ার সময় হাঁটু পরিমাণ পানি পেরিয়ে অনেক দুর্ভোগ সহ্য করে নিয়ে যেতে হয়। এসময় সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। ডিককুল গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী হাশেম আলী অনেকটা ক্ষোভের সাথে বলেন-দীর্ঘদিন ধরে বাস টার্মিনাল থেকে উপজেলা গেইট পর্যন্ত এই সামান্য অংশটিতে ড্রেন নির্মাণ ও সড়ক সংস্কার না হওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে মানুষদের।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •