আমরা নিম্নস্বাক্ষরকারী  দুই জনই পরস্পরের নিকট আত্মীয় ও পূর্ব পরিচিত। গত কয়েক মাস ধরে আমরা দুই জনের মধ্যে পারস্পরিক ভুল বুঝাবুঝির ঘটনা ঘটে। যা থানা-আদালত পর্যন্ত গড়ায়। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে আমাদের মাঝে আপোষ মীমাংসা হয়। দুই জনের মধ্যে যে কয়েকটি মামলা মোকাদ্দমা হয়েছে তাও প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়েছে, তা আমরা মেনে নিয়েছি।

এদিকে, মতবিরোধের কারণে পরস্পরের বিরুদ্ধে ” মা ও বড়ভাইকে মারধরে বেতার কর্মচারী রিদুয়ানুল করিমের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা, একই বিষয়ে মা ও বড়ভাইকে মারধর নেপত্যে সাংবাদিক লিটন কুতুবীর প্রসঙ্গে বেতার কেন্দ্রের কর্মচারী রিদুয়ানের বক্তব্য শীর্ষক সংবাদ বিভিন্ন পত্রিকায় ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হয়। যা আমরা প্রত্যাহার করে নিলাম। আজ থেকে আমাদের মধ্যে কোন ধরনের মত বিরোধ থাকবে না বা রইল না। এব্যাপারে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করছি। সেই সাথে আমাদের বিরুদ্ধে কেউ বিষোদাগার করলে, দুই জনেই ঐক্যবদ্ধ ভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।
যারা আমাদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির এই ঘটনার আপোষ মীমাংসার মাধ্যমে অবসান ঘটায়, তাদের সকলের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

অনুরোধক্রমেঃ
১.এসকে লিটন কুতুবী
সভাপতি-কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাব।
২.একেএম রিদওয়ানুল করিম
অফিস সহকারী,বাংলাদেশ বেতার, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •