অনলাইন ডেস্ক:
সমুদ্রে ধীরে ধীরে ডুবে যাচ্ছে একটি বিশাল মালবাহী জাহাজ। আর তাতে থাকা জ্বালানি তেল মিশছে সমুদ্রের পানিতে। এমনই একটি ভিডিও সামনে এসেছে। এটি দ্বীপরাষ্ট্র মরিশাসের সৈকতের কাছের ঘটনা। বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত পরিবেশবিদরা। এই সংক্রান্ত কয়েকটি ছবি, ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। দুর্ঘটনার পরে জাহাজটি থেকে তেল ছড়িয়ে পড়া আটকানোর বিষয়ে মরিশাসের সরকারের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, পানিতে ডুবতে বসা জাহাজটি প্রায় দু’ টুকরো হয়ে গিয়েছে। আর তা থেকে তেল গিয়ে মিশছে সমুদ্রের পানিতে। আশপাশে আরও অন্তত দু’টি ছোট জাহাজ দেখা যাচ্ছে। সম্ভবত সেগুলি উদ্ধার কাজে ব্যবহার হচ্ছে। হেলিকপ্টার থেকে ক্যামেরাবন্দি করা এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কিছুটা দূরেই সৈকত।

এটি জাপানি সংস্থা নাগাসাকি শিপিংয়ের ‘এম ভি ওয়াকাশিও’ নামের একটি জাহাজ। জানা গেছে, ২৫ জুলাই এটি একটি প্রবালপ্রাচীরে আঘাত করে, জাহাজে ফাটল দেখা দেয়। সমুদ্রের ঢেউয়ের চাপে সেই ফাটল বাড়তে থাকে। জাহাজটিতে জ্বালানি হিসেবে প্রায় তিন হাজার টন তেল ছিল। ছয় আগস্ট থেকে জ্বালানি তেলের ট্যাঙ্কের একটি অংশ থেকে থেকে প্রায় হাজার টন তেল পানিতে মিশছে। সমুদ্র থেকে সেই তেল যতটা সম্ভত পরিষ্কার করা চেষ্টা চালানো হচ্ছে।
জাহাজটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ার পরেও কেন দেরি করে তার জ্বালানি তেল সরানোর কাজ হল, তা নিয়ে মরিশাস সরকারের ভূমিকায় প্রশ্ন উঠতে আরম্ভ করে। যদিও সরকারের দাবি, খারাপ আবহাওয়ার জন্য তেল সরানোর কাজ সম্পূর্ণ করা যায়নি। এদিকে জাহাজটি কী ভাবে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল, তা নিয়ে জাপানি সংস্থাটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। আর মরিশাস সরকার ওই কোম্পানির কাছে আবার ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। পরিবেশবিদদের দাবি, ওই এলাকায় প্রবালপ্রাচীরের যে ক্ষতি হয়েছে তা আর পূরণ হবে না। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •