শাহেদ মিজান, সিবিএন:

মেজর (অব.) সিনহা মোঃ রাশেদ হত্যা মামলার আসামী সাবেক ও বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই লিয়াকত আলী ও এএসআই নন্দদুল্লা রক্ষিতকে টানা ৮ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গঠিত উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি। আজ সোমবার (১৭ আগস্ট) সকাল ১১টায় শুরু হয়ে সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ   জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে  কারাগার ত্যাগ করেছেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। তবে আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের কোনো ধরণের ব্রিফ করেনি তদন্ত কমিটি।

কক্সবাজার জেলা কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক মোকাম্মেল হোসেন জানান, তদন্ত কমিটির আহবায়ক ও চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে সকাল ১১টার দিকে তদন্ত দল কারাগারের ফটকে অবস্থান করেন। এরপর থেকে বরখাস্ত হওয়া, এসআই লিয়াকত ও এএসআই নন্দদুলালকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা।  দুপুরে কিছুটা সময় বিরতি দিয়ে টানা ৮ ঘন্ট ঘন্টা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তদন্ত দল কারাগার ত্যাগ করেন।

সূত্র আরো জানায়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গঠিত উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি মেজর (অব.) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যা তদন্ত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে গ্রেফতার ওসি প্রদীপসহ ১০ আসামী জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রথম দিনে কারাগারে থাকা বরখাস্ত হওয়া এসআই লিয়াকত ও এএসআই নন্দদুলাল রক্ষিতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা গণমাধ্যমে জানিয়েছেন, মেজর (অব.) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় তদন্ত কমিটি বিশদ পরিসরে তদন্ত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তদন্তের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে টেকনাফ থানা পুলিশ, বাহারছড়া ফাঁড়ি পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী আমর্ড পুলিশের সদস্য, গাড়ি চালকসহ ৬০ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে। একই সাথে তবুও আরো বৃহৎ পরিসরে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্যই এই গণশুনানীরও আয়োজন করা হয়।

সাংবাদিকদের দেয়া এক ব্রিফিংয়ে কমিটির প্রধান চট্টগ্রাম অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, তদন্ত কার্যক্রম প্রায় শেষের পথে। অবশিষ্ট কার্যক্রম শেষ করে আগামী ২৩ আগস্ট নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই মেজর (অব.) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জমা দেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •