cbn  

মহেশখালী প্রতিনিধি:
মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক কেরুনতলীতে বাড়ির আঙিনায় রোপিত ফুলের গাছ ছুরির প্রতিবাদ করায় মোঃ ইসহাক (১৮) নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাত করেছে প্রতিবেশিরা। এতে তিনি গুরুতর আহত হয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ছুরিকাঘাতের শিকার যুবক মোঃ ইসহাক হোয়ানক কেরুনতলী নয়াপাড়া বালুঝিরি এলাকার নুরুল হকের পুত্র। এই ঘটনায় তার মা আমেনা খাতুন ও ভগ্নিপতি মোঃ সুরজ মিয়াকে আঘাত করা হয়েছে।

মোঃ ইসহাকের মা আমেনা খাতুন জানান, তাদের বাড়ির আঙিনায় রোপিত বিভিন্ন ফুলের গাছ প্রায় সময় ছুরি করে নিয়ে যায় তাদের প্রতিবেশি সাইফুল ইসলামের ছেলে-মেয়েরা। এতে বিভিন্ন সময় প্রতিবাদ জানানো হয়। এই নিয়ে বিভিন্ন সময় কথা কাটাকাটি হয়। তারপরও কয়েকদিন আগে আবারো ফুলের গাছ ভেঙে ছুরি করে নিয়ে যায় সাইফুল ইসলামের ছেলে-মেয়েরা। এতে কান্নাকাটি শুরু করে আমেনা খাতুনের মেয়েরা। তাই বাধ্য হয়ে এই গাছ ছুরির প্রতিবাদ জানান আমেনা খাতুন ও তার মেয়েরা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাইফুল ইসলাম ও তার ছেলে সাজিম মিলে আমেনা খাতুন ও তার মেয়েদের মারধর করে।

খবর পেয়ে পাশে পানের বরজে কাজ করা আমেনা খাতুনের পুত্র মোঃ ইসহাক ও তার মেয়ে জামাই এগিয়ে আসে। তারা এগিয়ে আসলে সাজিম বাড়ি থেকে টিপ ছুরি এনে মোঃ ইসহাকের পেছনের তলপেটে আঘাত করে। এতে মারাত্মক জখম হয় তার। তাকে দ্রুত মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ো যাওয়া হয়। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়।

বর্তমানে মোঃ ইসহাক কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। এই ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •