cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ
তারুণ্যভিত্তিক সংগঠন সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট, হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরাম – সিইএইচআরডিএফ এর উদ্যোগে আন্তর্জাতিক যুব দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৩ আগষ্ট) কক্সবাজারের সাব-অফিসে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

ফোরামের পরিচালক(প্রোগ্রাম) রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক ইরফান মাহমুদ এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিইএইচআরডিএফ এর প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া।

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিইএইচআরডিএফ এর পরিচালক(কো-অর্ডিনেশন এফেয়ার্স) আব্দুল মান্নান রানা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক(প্রকল্প) আব্দুল আলিম, উপ-সহকারী পরিচালক (সামাজিক অন্তর্ভূক্তি) চন্দন কান্তি দে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিইএইচআরডিএফ এর প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া বলেন, সারাবিশ্বে বর্তমানে ২০০ কোটি তরুণের বসবাস। কিন্তু রাষ্ট্রসমূহের অব্যবস্থাপনা কার্যত তরুণদের যাবতীয় উৎকর্ষতার বিরুদ্ধে অবস্থান করছে।

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার প্রায় সবকটি লক্ষ্যই তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাস্তবায়ন সম্ভব। জাতিসংঘ এটিকে সঠিকভাবে চিহ্নিত করেছে। এখন আমাদের উচিত তারুণের লিসবন ঘোষণা বাস্তবায়ন। বিশ্বের রাষ্ট্রগুলোর এ বিষয়ে এগিয়ে আসা উচিত।

তিনি আরো বলেন, আমরা এ সময়টিকে কাজে লাগাতে পারি। প্রয়োজনীয় দক্ষতা, অধিকতর অর্থনৈতিক সুযোগ, মৌল মানবিক শিক্ষা, রাজনৈতিক সচেতনতা আমাদের তারুণ্য ও দেশের এমনকি বিশ্বব্যবস্থাকে বদলে দিতে পারে।

স্বাগত বক্তব্যে কো-অর্ডিনেশন পরিচালক আব্দুল মান্নান রানা বলেন, চলমান সময়ে বিশ্বব্যাপী পরিবেশগত সংকট, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিঘাত, মানবাধিকার লঙ্ঘন, টেকসই উন্নয়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং আলোচিত বিষয়। এসব বিষয় সমাধানে তারণ্যের ভূমিকা হতে পারে কার্যকর।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রকল্প পরিচালক আব্দুল আলিম বলেন, সারা পৃথিবীতে আজকের তরুণদের মতামতকে অগ্রাহ্য করার কারণে মাদক, বেকারত্ব, হতাশা, নিগ্রহ, আত্মহত্যা, নৈতিক অবক্ষয় বেড়েই চলছে।

সম্ভাবনার বিকাশের পথ রুদ্ধ হওয়ায় তারা তাদের এ সম্ভাবনাকে বর্তমানে অপপথে খরচ করছে।

সভাপতির বক্তব্যে প্রোগ্রাম পরিচালক রুহুল আমিন বলেন, বিশ্বব্যাপী তারুণ্যের জাগরণ একটি সময়ের দাবী। বেকারত্ব, হতাশা কাটিয়ে ওঠে বিশ্বমানবের কাছে দায়বদ্ধতা থেকে হলেও আমাদের তরুণদের আত্মসূচনা করা উচিত।

এ সূচনা হবে একটি বিশাল কর্মযজ্ঞের। এখানে বসে থাকার কোন সময় থাকবেনা। অবিরত, অক্লান্ত পরিশ্রম আমাদের করে যাওয়া উচিত। আমাদের একটু একটু কাজ সারাবিশ্বের অর্থনীতি ও রাজনীতির মেরুদণ্ড নতুন করে প্রতিস্থাপন করতে পারত।

দিবসটি উপলক্ষে বক্তব্য রাখেন শরণার্থী ও অভিবাসন সম্পাদক জায়েদ ইকবাল রাকিব, সিইএইচআরডিএফ এর পাঠাগার আন্দোলন ব্যবস্থাপক সাগর নাথ, রুপান্তর সহ-সমন্বয়ক আবদুল মোমেন, প্রাইম এসিস্ট্যান্ট জেসমিন সুলতানা, ঈদগড় ফোরাম সমন্বয়ক নজিবুল হক প্রমূখ।

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্টুডেন্ট ফোরাম সমন্বয়ক নুরুল আবছার, মহেশখালী ফোরাম সমন্বয়ক আবদুল নবী, পাঠাগার আন্দোলন সহ-ব্যবস্থাপক(মিডিয়া) সাহাব উদ্দিন, শাপলাপুর ফোরাম সদস্য সোহেল রানা প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •