সিবিএন ডেস্কঃ
নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে কৌশলে মোটরসাইকেল চুরি করেন। এরপর কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নিয়ে গিয়ে বিক্রি করা হয় এসব চোরাই মোটরসাইকেল। এমন একটি চক্রের সন্ধান মিলেছে নগর পুলিশের তদন্ত ও অভিযানে। পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, চক্রটির সদস্যরা নগরীতে মোটরসাইকেল চুরি করে বেড়ায়।
নগরের পাঁচলাইশের এক ভুক্তভোগীর দায়ের করা মামলার তদন্ত করতে গিয়ে শনাক্ত হয় চক্রটি। রোববার (৯ আগষ্ট) গভীর রাতে জেলার বাঁশখালী ও চকরিয়ায় অভিযান চালিয়ে দুটি চোরাই মোটরসাইকেলে সহ চোর চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করে নগর পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত চার জন হলেন-বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা এলাকারমো. উসমানের ছেলে মো. আব্দুল হাকিম প্রকাশ ড্রাইভার হাকিম (৪০), কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার মৃত আশরাফ আলীর ছেলে মো. ইউনুস (৩১),কক্সবাজার সদরের মৃত সোনা মিয়ার ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (৩৭) ও বাশঁখালীর সরল পশ্চিম জলদীর জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মো. তানভীর (২৫)। নগরীর চাঁন্দগাও থানাধীন মৌলবী পুকুর পাড় ও পাঁচলাইশের বিবিরহাট এলাকায় গ্রেফতারকৃত চারজন বসবাস করে আসছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত চারজন পুলিশকে জানিয়েছেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে নগরীর বিবিরহাট, বায়েজিদের শীতল ঝর্ণা এলাকা, কোতোয়ালির আন্দরকিল্লাসহ আরও বেশ কিছু এলাকায় কৌশলে মোটরসাইকেল চুরি করে আসছেন। পর চোরাইকৃত মোটরসাইকেলগুলো কক্সবাজারের বিভিন্ন উপজেলায় নিয়ে গিয়ে বিক্রি করেন।
নগর পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (বায়েজিদ জোন) পরিত্রাণ তালুকদার বলেন, বায়েজিদের এক ব্যক্তির করা মামলার সুত্র ধরে মোটরসাইকেল চোর চক্রের চারজন সদস্যকে বাশঁখালী ও চকরিয়া থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় চোরাইকৃত দুটি মোটরসাইকেলও উদ্ধার করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে মোটরসাইকেলসহ চারজন চোর চক্রের সদস্যকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

-সিভয়েস