সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ
সংগঠনের পরিচালনা ও উন্নয়নে ১১ সদস্যের পরিচালনা কমিটি ঘোষণা করেন কক্সবাজার হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন -সিএইচআরডিএফ।
রবিবার (৯ আগষ্ট) বিকাল ৫ টায় সংস্থাটির বিশেষ আলোচনা সভায় এই সিদ্ধান্ত ঘোষিত হয়েছে।
সিএইচআরডিএফ- এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোঃ মহিউদ্দিন মহির সভাপতিত্বে এতে ১১ জন কার্যকরী সদস্যের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন সংস্থাটির প্রধান উপদেষ্টা ইখতিয়ার উদ্দিন বায়েজিদ, উপদেষ্টা সেলিম বাদশা এবং তার সহধর্মিণী বিশিষ্ট মনোবিজ্ঞানী তাহমিনা পারভিন।
সিএইচআরডিএফ ২০১৩ সালে ছোট্ট পরিসরে গঠিত হয়। বর্তমানে সংস্থাটির জনবল সংখ্যা অনেক।
সভার শুরুতেই প্রত্যেক সদস্য নিজের দায়িত্ব ও সংগঠনের নীতিমালা সম্পর্কে কথা বলেন।
এরপর সদস্যদের দায়িত্ব, যুগোপযোগী কর্মজীবন ও দক্ষতার উন্নয়নমূলক বক্তব্য রাখেন প্রধান উপদেষ্টা ইখতিয়ার উদ্দিন বায়েজিদ।
তিনি যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বাঁচতে গেলে ব্যবহারিক জীবনের গুরুত্ব তুলে ধরেন। আলোচনার এক পর্যায়ে বায়েজিদ বলেন, প্রতিযোগিতার এ যুগে কর্মক্ষেত্রে টিকে থাকতে হলে নিজেকে অনেক বেশি বাস্তবমুখী ও যুগোপযোগী দক্ষতার অধিকারী হতে হবে। নিজের কাজে নতুনত্ব আনতে হবে। তাহলেই গ্রহণযোগ্যতা পাওয়া যাবে।
এসময় তিনি সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য ‘সততা ও কর্মক্ষেত্র’ নিয়ে একটি কর্মশালা আয়োজনের পরামর্শ দেন।
উপদেষ্টা সেলিম বাদশা সততা, নৈতিকতা এবং প্রফেশনাল আচরণ নিয়ে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন।
তিনি বলেন, নীতি নৈতিকতা সম্পন্ন মানসিকতা ও কাজের প্রতি শ্রদ্ধা মানুষকে অনেক দূর নিয়ে যেতে পারে। গঠনমূলক নেতৃত্ব ও প্রফেশনাল আচরণের উপর একটি কর্মশালা করার কথাও বলেন সেলিম বাদশা।
বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির যুগে গবেষণার গুরুত্ব তুলে ধরেন মনোগবেষক তাহমিনা পারভিন।
তিনি বলেন, জ্ঞানের পরিধিকে আরো মজবুত ও তথ্য সমৃদ্ধ করতে হলে গবেষণার গুরুত্ব অপরিসীম।
তিনিও গবেষণার উপর কিছু কর্মশালা করার কথা বলেন। পরিশেষে প্রতিষ্ঠাতা মোঃ মহিউদ্দিন মহি দক্ষতা ও অনুপ্রেরণামূলক কথার মাধ্যমেই তাঁর বক্তব্যের ইতি টানেন।