প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজার জেলার কৃতিসন্তান বিশ্ববরেণ্য মুফতি প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন জেলা তাবলীগ জামাতের আমীর ও রামুর অফিসেরচর ইসলামিয়া কওমিয়া কাছেমুল উলুম মাদরাসার পরিচালক (মুহতামিম) আল্লামা মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরী আজ বিকাল পৌনে পাঁচটায় রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সিপাহীর পাড়ায় নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেছেন, ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি রামুর বিশিষ্ট জমিদার মরহুম সুলতান আহমদ সওদাগরের সপ্তম ছেলে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬৫ বছর। তিনি অসুস্থবোধ করলে হাসপাতালে নেয়ার পথে ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৪ মেয়ে, ১ ছেলে এবং অসংখ্য ভক্ত ও গুণগ্রাহী রেখে যান।

বাংলাদেশ তাবলীগ জামায়াতের জাতীয় মজলিসে সূরার সদস্য এবং কক্সবাজার জেলা তাবলীগ জামাতের আমীর (জিম্মাদার) আন্তর্জাতিকভাবে প্রসিদ্ধ মুবাল্লিগ। তাবলীগ জামায়াতের দাওয়াত প্রচার করতে তিনি বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশ ভ্রমণ করে দ্বীনের দাওয়াত দিয়েছেন। মৃত্যুর আগেরদিন (শনিবার) ঈদুল আযহা এবং দুদিন আগে জুমার সালাতেও ইমামতি করেন তিনি।

#শোক_প্রকাশ বিশ্ববরেণ্য মুফতি প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন ও জেলা তাবলীগ জামাতের আমীর মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরীর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন খেলাফত মজলিসের কক্সবাজার জেলা সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা মুফতি আবু মূসা ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাওলানা হাফেজ নুরুল্লাহ জিহাদী। প্রদত্ত এক যৌথ শোক বাণীতে নেতৃদ্বয় বলেন, মরহুম মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরীর একজন প্রথিতযশা আলেমে দ্বীন ছিলেন। বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশ ভ্রমণ করে দ্বীনের দাওয়াত দিয়েছেন। ইসলামী শিক্ষা বিস্তারেও অগ্রনী ভূমিকা পালন করেছেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে সৃষ্ট শূণ্যতা পূরণ হবার নয়। নেতৃদ্বয় মরহুম মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরীর রুহের মাগফিরাত কামনা করেন ও তার জান্নাতের উচ্চ মাকাম নসিবের জন্য দোয়া করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •