মোঃ আকিব বিন জাকের, মহেশখালী :

চট্টগ্রাম উপকূলীয় বন বিভাগের আওতাধীন মহেশখালী রেঞ্জের সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা ইউসুফ উদ্দীন ভূমিদখলকারী সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত হয়ে অস্ত্রোপচারের পর বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে আছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়,গত ৩০ ই জুলাই (বৃহস্পতিবার) উপকূলীয় রেঞ্জ মহেশখালীর কেরুনতলী বিটের করইবুনিয়া এলাকায় বন বিভাগের সংরক্ষিত এলাকায় সৃজিত অবৈধ পানের বরজ উচ্ছেদ করতে যায় সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা ইউসুফ উদ্দীন(৩০), কেরুনতলী বিট কর্মকর্তা আহসানুল কবির(৪৫) এবং বন বিভাগের নৌকা চালক জিয়া রহমান সহ আরো কয়েকজন বন কর্মকর্তা।
ভূমিদখলকারীরা গোপন ভিত্তিতে উচ্ছেদ অভিযানের কথা জানতে পেরে পরিকল্পিতভাবে অস্ত্র সহকারে সজ্জিত হয়ে থাকে আক্রমণের উদ্দেশ্যে। অভিযান পরিচালনার উদ্দেশ্যে বনকর্মীরা উক্ত স্থানে গেলেই সংঘবদ্ধভাবে ভূমিদখলকারীরা অতর্কিতভাবে বনকর্মীদের উপর ঝাপিয়ে পড়ে। এতে সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা ইউসুফ উদ্দিন, বিট কর্মকর্তা আহসানুল কবির এবং বন বিভাগের নৌকা চালক জিয়া আহত হয়। তন্মধ্যে সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা গুরুতর আহত হয়ে আজ দুদিন ধরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মাথায় অস্ত্রোপচারের পর অজ্ঞাত অবস্থায় লাইফসাপোর্টে আছেন। পাঞ্জা লড়ছেন ম‍ৃত‍্যুর সাথে!

মহেশখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা সুলতানুল আলম চৌধুরী বলেন, বারবার বন কর্মীদের উপর হামলায় আমরা হতাশ। কেরুনতলী বিটের করইবুনিয়া এলাকায় বন কর্মীদের উপর হামলার ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আইনি ব‍্যাবস্থা নেওয়ার দাবী জানাচ্ছি।

এদিকে সচেতন মহল মনে করছেন, প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ ব‍্যাবস্থা গ্রহণ এবং বন বিভাগে লোকবল সংকটের কারণে বারংবার এমন ঘটনার শিকার হচ্ছে বন কর্মীরা। এ থেকে নিস্তার পেতে প্রয়োজন সর্বোচ্চ প্রশাসনিক সহযোগিতা এবং বন বিভাগে পর্যাপ্ত জনবল নিয়োগ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •