ফাইল ছবি

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার শহরে শনিবার এক আগস্ট ঈদুল আযহার নামাজের প্রধান জামাত হবে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ জামে মসজিদে সকাল ৮ টায়। কক্সবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাহমুদুল হক ঈদুল আযাহার জামাতে ইমামতি ও খুতবা প্রদান করবেন। মাওলানা মাহমুদুল হক ১৯৯২ সাল থেকেই জেলার প্রধান ঈদের নামাজের জামাতের ইমামতি করে আসছেন। শনিবারের ইমামতি হবে তাঁর ২৯ তম ইমামতি।

মাওলানা মাহমুদুল হক জানান, ঈদুল আযহার গুরুত্ব, তাৎপর্য এবং স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে ইসলামের বিধি বিধানের বিষয়ে তিনি খুতবা ও জামাত পূর্ববর্তী আলোচনা করবেন। জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন সহ জেলার উর্ধ্বতন কর্মকতা, রাজনীতিবিদ, ও বিশিষ্টজনেরা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ জামে মসজিদের প্রধান জামাতে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করবেন। একই মসজিদে সকাল ৯ টায় ঈদুল আযহার দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া, কক্সবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮ টা ১৫ মিনিটে প্রথম জামাত এবং ৮ টা ৪৫ মিনিটে ঈদুল আযাহার নামাজের দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাতে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের প্রধান ইমাম মাওলানা সোলাইমান কাসেমী ইমামতি ও খুতবা প্রদান করবেন। বদর মোকাম জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮ টায় ঈদুল আযাহার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স জামে মসজিদে সকাল ৮ টায় প্রথম জামাত ও সাড়ে ৮ টায় দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। টেকপাড়া জামে মসজিদে সকাল ৮ টায় প্রথম জামাত ও সকাল সাড়ে ৮ টায় ঈদুল আযাহার দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ফায়ার সার্ভিস জামে মসজিদে সকাল ৭ টায় ঈদুল আযাহার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এবিসি ঘোনা চেয়ারম্যান ঘাটা মসজিদে বায়তুল্লাহ কমপ্লেক্সে সকাল ৮ টায় প্রথম জামাত ও সকাল ৮ টা ৪৫ মিনিটে ঈদুল আযাহার দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাতে খতিব হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ ফারুক ও দ্বিতীয় জামাতে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ইমামতি করবেন।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান সহ জেলার কোথাও খোলা মাঠে ঈদুল আযাহার নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবেনা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •