মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) প্রফেসর ড.শিরীণ আখতার এর স্বামী ৭১’র রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) লতিফুল আলম চৌধুরী’র প্রথম নামাজে জানাযা ২৯ জুলাই বেলা ১১ টায় চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্টে এবং একইদিন দ্বিতীয় নামাজে জানাজা জোহরের নামাজের পর হযরত গরীব উল্লাহ শাহ (রঃ) মাজার জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়।

দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশের দুটি পৃথক চৌকস দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এসময় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষে, চট্টগ্রামের মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে ও পুলিশ বাহিনীর নেতৃত্বে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার ও ফুল দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) লতিফুল আলম চৌধুরী’র কফিনে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অর্নার ও ফুল দিয়ে তাঁকে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তাঁকে হযরত গরীব উল্লাহ শাহ (রঃ) মাজারস্থ কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

চবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে রেজিস্ট্রার, চবি শিক্ষক সমিতি, হলসমূহের প্রভাস্টবৃন্দ, প্রক্টরিয়্যাল বডির সদস্যবৃন্দ এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ বীর মুক্তিযোদ্ধার কবরে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সহ-সভাপতি নইম উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ আ.জ.ম নাছির উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, চবি সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, সিনেট সদস্যবৃন্দ, এলামনাই এসোসিয়েশনের সদস্যবৃন্দ, সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সর্বস্তরের সদস্য, বিশেষ করে শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, কর্মচারী সমিতি এবং কর্মচারী ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগসহ অন্যান্য প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ, তাঁর দীর্ঘদিনের প্রতিবেশী, শুভানুধ্যায়ী ও আত্মীয়স্বজনরা তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানান ও নামাজে জানাজায় অংশ নেন।

প্রসঙ্গত, ২৮ জুলাই দিবাগত রাত ১.২০ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্টস্থ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ফুসফুসের সংক্রমণ ও বার্ধক্যজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রী চবি উপাচার্য (ভিসি) প্রফেসর ড.শিরীণ আখতার, ১ ছেলে, ১ মেয়ে, নাতি-নাতনী ও আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) লতিফুল আলম চৌধুরী চট্টগ্রাম শহরের ২৫ নং রামপুর ওয়ার্ড নিবাসী মৃত আলহাজ্ব মোহাম্মদ মোস্তাফা চৌধুরী’র সন্তান। বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) লতিফুল আলম চৌধুরী কক্সবাজারের রামু’র জোয়ারিয়ানালার সন্তান ও তৎকালীন কক্সবাজার মহকুমা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবছার কামাল চৌধুরী’র জামাতা। ব্যক্তিজীবনে এ বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন নির্লোভ, নিরঅহংকারী, সদালাপী, বন্ধুবৎসল, অমায়িক সর্বোপরি একজন নিখাদ দেশপ্রেমিক। বর্ণাঢ্য জীবনের অধিকারী এ সেনা কর্মকর্তা ১৯৭১ সালে দেশকে হানাদার মুক্ত করতে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।

প্রয়াত স্বামীর জন্য দোয়া কামনা :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড.শিরীণ আখতার এক বিবৃতিতে তাঁর প্রয়াত স্বামী মেজর (অবঃ) লতিফুল আলম চৌধুরীর বিদেহী আত্মার মাগফেরাতের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারসহ সকল শুভানুধ্যায়ীদের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •