সুনীপ দাশ সৌরভ, চকরিয়া :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় মহাসড়কে পশুর হাট বসতে না দেওয়া, পশুবাহী গাড়ি নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছানো, মহাসড়ক যানজটমুক্ত রাখা ছাড়াও যে কোন ধরণের চাঁদাবাজি বন্ধে বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে হাইওয়ে পুলিশ। পশুর হাটগুলোতে উপজেলা প্রশাসন এবং থানা পুলিশের তৎপরতার পাশাপাশি উপরোক্ত অনিয়ম বন্ধে চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশও গত দুইদিন ধরে কঠোর অবস্থানে থেকে তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

এদিকে কোরবানি উপলক্ষ্যে চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালীর ভেণ্ডিবাজারে মহাসড়ক ঘেঁষে আর কোন পশু বিক্রির হাট বসতে না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশও। মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের তৎপরতা প্রসঙ্গে চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. আনিসুর রহমান বলেন, ‘ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মোতাবেক কয়েকটি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে আমরা মাঠে তৎপর রয়েছি। তন্মধ্যে পশুবাহী গাড়ি নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছানো, মহাসড়ক যানজটমুক্ত রাখা, মহাসড়কে কোন প্রকার চাঁদাবাজি যেন না হয় তা নিশ্চিত করা ছাড়াও চকরিয়া অংশে মহাসড়কের কোথাও যেন পশু বেচাবিক্রির হাট বসতে না পারে সেজন্য আমাদের সার্বক্ষণিক তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।’

আনিসুর রহমান বলেন, ‘গত দুইদিন ধরে হাইওয়ে পুলিশের এসব তৎপরতায় মহাসড়কের কোথাও এ ধরণের অপতৎপরতার খবর পাওয়া যায়নি। ঈদের আগেরদিন পর্যন্ত অন্য সময়ের চাইতে আমাদের এই তৎপরতা সার্বক্ষণিক অব্যাহত থাকবে। চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ জানান, মহাসড়কের আশপাশেও যাতে কোন ধরণের পশুর
হাট বসাতে না পারে সেজন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •