cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

যেকোন ফৌজদারি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন (চার্জশীট-সিএস) আলামত ছাড়া আদালতে গ্রহণ করা হবে না। সিএস-এ সকল সাক্ষীর মোবাইল নম্বর উল্লেখ থাকতে হবে। ১৬১ ধারায় সাক্ষীর গৃহীত কম্পিউটার টাইপ করা জবানবন্দি আদালতে আর দাখিল করা যাবেনা। একজন সাক্ষীর গৃহীত কম্পিউটার টাইপ করা একই জবানবন্দি ভিন্ন সাক্ষীর জন্য বার বার অবিকল কপি করে আদালতে দাখিল করা হয়। সেক্ষেত্রে মামলার সামারী নষ্ট হয় এবং বিচারকার্য ব্যাহত হয়।

কক্সবাজার পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসীর অনলাইন প্লাটফর্মে ভার্চুয়াল কনফারেন্সে কক্সবাজারের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিম চৌধুরী’র প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে এ সব সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ভার্চুয়াল কনফারেন্সে অংশ নেয়া একজন সদস্য এ তথ্য সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। ২৭ জুলাই রাতে এই ভার্চুয়াল কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।

কনফারেন্সে আরো সিদ্ধান্ত হয়, বিজিবি কোন আলামত নিজেদের কাছে রাখতে পারবেনা। সংশ্লিষ্ট থানার ওসি অথবা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার (আইও) কাছে হস্তান্তর করতে হবে। জব্দকৃত মাদক জাতীয় আলামত দ্রুততম সময়ে বিনষ্ট করার জন্য আদালতে আবেদন করতে হবে। যে কোন আসামীকে অপ্রয়োজনে ২৪ ঘন্টার বেশি আটক নারেখে প্রয়োজনে একই দিন কেইস ডাইরী (সিডি) সহ আদালতে রিমান্ড আবেদন করে আসামীকে হেফাজতে নিতে হবে।

ভার্চুয়াল কনফারেন্সে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।কক্সবাজারের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের স্টেনোগ্রাফার মোঃ নেছারুল হক জানান, কনফারেন্সে কক্সবাজারের জেলা
প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন, পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার), অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব কুমার বিশ্বাস, ৩৪ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আযাদ আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ দেলোয়ার হোসেন, বেগম জেরিন সুলতানা, মুহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন, মুহাং হেলাল উদ্দিন, রাজিব কুমার দেব, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজাউল হক, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (দক্ষিণ) হুমায়ুন কবির, পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম, সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডা. আলমগীর মো. মহিউদ্দিন, জেল সুপার মো. মোকাম্মেল হোসেন, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সোমেন মন্ডল, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট আজম মঈন উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জিয়া উদ্দিন আহমদ, থানার ওসিবৃন্দ, ডিবি’র ওসি, কোর্ট ইন্সপেক্টর অংশ নেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •