কক্স ৭১- নামের অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত ভুলুর দায়িত্বে এখন জেঠাতো ভাই হাসান: পাহাড়তলীতে রয়েছে আরো খুচরা ইয়াবা ব্যবসায়ি’ শীর্ষক সংবাদটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও গভীর ষড়যন্ত্রমূলক। মূলত পারিবারিক শত্রæতা থেকে সাংবাদিককে মিথ্যা তথ্য দিয়ে এই মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে।

প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, ইয়াবা ব্যবসায়ি ভুলু বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। তিনি নিহত হওয়ার বহু বছর আগে থেকে ভুলুর পরিবারের লোকজনের সাথে হাসানের পরিবারের দ্ব›দ্ব ছিলো। এই কারণে ভুলুর সাথে আমার স্বামী হাসান ও তার পরিবারের লোকজনের বহুবার নানাভাবে প্রকাশ্যে ও অপ্রকাশ্যে নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। এমনকি তা প্রকাশ্য সংঘর্ষের পর্যায়ে ছিলো। এই দ্ব›েদ্বর কারণে চাচাতো-জেঠাতো ভাই হলেও বহু দিন থেকে ভুলু ও তার পরিবারের লোকজনের সাথে হাসানের পরিবারের লোকজনের কোনো ধরণের যোগাযোগ বা সম্পর্ক নেই। ভুলু মরে যাওয়ার পরও এখন পর্যন্ত ওই দ্ব›দ্ব শিথিল হয়নি।
এদিকে সম্প্রতি আমাদের বাড়িটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় তা ভেঙে নতুন করে তৈরি করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। কিন্তু পরিবারের কিছু সদস্য এর বিরোধীতা করছে। হাসান এর পক্ষে রয়েছে এবং নতুন বাড়ি তৈরি করার ক্ষেত্রে কার্যক্রমগুলো পরিচালনা করছে। মেয়াদোত্তীর্ণ বাড়িটি ভাঙার জন্য ইতোমধ্যে পৌরসভা থেকে অনুমোদনও নেয়া হয়েছে। কিন্তু যারা বাড়ি ভাঙার বিরোধীতা করছে তারা এতে হাসানের প্রতি তীব্র অসন্তোষ হয়ে পড়েছে। তারা বাড়ি ভাঙা ঠেকানো এবং হাসানকে ঠেকিয়ে রাখতেই গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ভুলুর সাথে জড়িয়ে হাসানের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের মিথ্যা দিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশ করিয়েছে। এক কথায় বাড়ি ভাঙাকে কেন্দ্র করে পারিবারিক মতবিরোধেই হাসানের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে। মূলত সম্প্রতি মাননীয় পুলিশ সুপার মহোদয় মাদক নির্মূলের যে ঘোষণা দিয়ে তাকে অপব্যহার এবং পুঁজি করে হাসানের ক্ষতি করার জন্য এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক সংবাদটি পরিবেশন করা হয়েছে।
পরিশেষে এই মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং সংশ্লিষ্ট কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

প্রতিবাদকারী
জান্নাতুল ফেরদৌস মেরি
হাসানের স্ত্রী

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •