আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
মালয়েশিয়া উপকূলে অভিবাসন প্রত্যাশী ২৫ জন রোহিঙ্গা যাত্রীবোঝাই একটি নৌকা ডুবে গেছে। নৌকাডুবির পর জীবিত উদ্ধার করা গেছে মাত্র একজনকে। বাকি ২৪ জনই মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। মালয়েশিয়ার কোস্টগার্ড কর্তৃপক্ষের বরাতে রোববার খবরটি জানিয়েছে আল-জাজিরা।

মালয়েশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ কেদাদ অ্যান্ড পেররিষের কোস্টগার্ড প্রধান মোহাম্মদ আবদুল্লাহ নৌকাডুবি নিয়ে আল-জাজিরাকে জানিয়েছেন, লাংকাওয়ি দ্বীপের উপকূলে সাতরানো অবস্থায় নূর হোসাইন নামের ২৭ বছর এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ছাড়া ওই নৌকায় আরও ২৪ জন ছিলেন।

প্রধান মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, ‘পুলিশের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ওই অবৈধ রোহিঙ্গা অভিবাসী (নূল হোসাইন) যে ডুবন্ত নৌকা থেকে লাফ দেন তাতে আরও ২৪ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে কেবল তিনিই সাঁতরিয়ে উপকূলে পৌঁছাতে সক্ষম হন।’ বাকিদের অবস্থা এখনও জানা যায়নি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী দুর্ঘটনাস্থলে একটি উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে। তবে অপর একজন সরকারি কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, অভিযান শুরু হলেও এখনও কোনো জীবিত মানুষ কিংবা কারও মরেদহ উদ্ধার হয়নি। নৌকাটিতে কি হয়েছিল সে সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি।

নিজ ভূমে পরবাসী মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর অন্যতম গন্তব্যস্থল মুসলিম অধ্যূষিত দেশ মালয়েশিয়া। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির বিস্তার ঠেকাতে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে মালয়েশিয়া সরকার দেশে রোহিঙ্গা প্রবেশ বন্ধের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু রোহিঙ্গাদের ঢল থেমে নেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •