এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:
চকরিয়ায় নিখোঁজের ১২ ঘন্টা পর সুলতান আহামদ (৬৫) নামে এক জেলে বাবুর্চির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের জেটিঘাট এলাকা থেকে স্থানীয় নৌ পুলিশ ওই জেলে বাবুর্টির লাশটি উদ্ধার করেন। এর আগে সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাছ ধরার বড় ট্রলার থেকে ডিঙ্গি নৌকা দিয়ে নদী পার হওয়ার সময় পানিতে তলিয়ে গিয়ে নিখোঁজ হন বাবুর্চি সুলতান আহমদ। নিহত সুলতান আহামদ পার্বত্যজেলা বান্দরবানের লামা উপজেলা হায়দারনাশি দক্ষিণপাড়া এলাকার মৃত কাল মিয়ার ছেলে। তিনি এমবি ভাই ভাই নামে একটি মাছ ধরার ট্রলারে এক বছরের জন্য বাবুর্চি হিসেবে কাজ করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন বলে জানায় নিহতের স্বজনরা।

উদ্ধার অভিযানের নেতৃত্ব দেয়া বদরখালী নৌ পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) নাসির উদ্দিন বলেন, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী গত ১৯ মে থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত সাগরে জেলেদের মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। আগামী ২৩ জুলাই উঠে যাচ্ছে এ নিষেধাজ্ঞা। তাই কিছু ট্রলার সাগরে মাছ ধরতে যাওয়ার জন্য বদরখালী জেটিঘাট এলাকায় নোঙ্গর করে জেলেরা আগাম প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জেটিঘাট এলাকায় নোঙ্গর করা এমবি ভাই ভাই নামে একটি ট্রলার থেকে নেমে ছোট ডিঙ্গি নৌকা নিয়ে নদী পার হচ্ছিলেন জেলে বাবুর্চি সুলতান আহামদ। এ সময় হঠাৎ ডেউয়ের তোড়ে ডিঙ্গি নৌকাটি পানিতে তলিয়ে গিয়ে নিখোঁজ হন তিনি। বিষিয়টি বোট মালিকদের পক্ষ থেকে স্থানিয় নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে জানানো হলে তাৎক্ষনাত নিখোজ জেলে বাবুর্চিকে উদ্ধারে জেটিঘাট এলাকায় নদীতে অভিযান চালানো হয়। গভীর রাত পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চালানোর পরও ওই জেলে বাবুর্চির কোন সন্ধান মেলেনি। মঙ্গলবার সকালে আবারো উদ্ধার অভিযান চালানোর পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নিখোঁজ জেলে বাবুর্চি সুলতান আহমদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এসআই নাসির উদ্দিন আরও বলেন, নিহত জেলে বাবুর্চির লাশ ময়না তদন্ত ছাড়া দাফন করার জন্য জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেছেন তার স্বজরা। এ ব্যাপারে অনুমতি পেলে জেলে বাবুর্চি সোলতান আহামদের লাশ তার পরিবারে কাছে হস্তান্তর করা হবে, অন্যথায় কাল বুধবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। বর্তমানে তার লাশ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী শেষে বদরখালী নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •