cbn  

সংবাদদাতা:

রামু উপজেলার রশিন নগরে দেবরের ইয়াবা ব্যবসা ও সেবনে অতিষ্ঠ হয়ে প্রতিবাদ করায় পারভিন আকতার (২৫) নামে এক গৃহবধূকে কোপানো হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ জুলাই) দুপুরের এই সংক্রান্ত কথা কাটাকাটি হলে দেবর হাবিবুর রহমান জুনাক তার ভাবি পারভিন আকতারকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে। হামলার শিকার পারভিন আকতর রশিন নগর ইউনিয়নের পানিরছড়া নাসিরাপাড়ার প্রবাসী আকবর আহমদের স্ত্রী।
তিনি অভিযোগ করেন, তার দেবর একই এলাকার শের আলীর পুত্র হাবিবুর রহমান জুনাক দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে। ইয়াবা ব্যবসা করে পাকা বাড়ি ও বিপুল টাকার মালিক হয়েছে। একই সাথে ইয়াবা সেবনও করে হাবিবুর রহমান জুনাক। তার ইয়াবা ব্যবসা ও সেবনের নানা সমস্যার সম্মুখীন হয়ে অতিষ্ঠ হয়ে উঠে ভাবি পারভিন আকতারসহ অন্যরা। এই নিয়ে বিভিন্ন সময় প্রতিবাদ করতো পারভিন আকতার। তেমনিভাবে প্রতিবাদ করায় মঙ্গলবার দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দেবর হাবিবুর রহমান জুনাক ধারালো দা দিয়ে ভাবি পারভিন আকতারকে হাত ও মাথায় কোপ দেয়। এতে মারাত্মক জখম হলে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার মাথার কোপটা মারাত্মক আশঙ্কাজনক হয়েছে বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।
জানা গেছে, হাবিবুর রহমান জুনাক দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। এ কারণে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হওয়ায় কয়েকবার এলাকার লোকজন প্রতিবাদ ও প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দিয়েছেন। তারপরও তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এক পর্যায়ে গত কোরবানের আগের দিন সাদা পোশাকধারী আইন প্রয়োগকারী সংস্থার একদল লোক বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২০০ পিস ইয়াবাসহ হাবিবুর রহমান জুনাক আটক করে। তবে রহস্যজনক কারণে ছাড়া পেয়ে যায় জনি। এতে আরো বেপরোয়া হয়ে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। ব্যবসার সাথে নিজেও সেবন করে আশেপাশের মানুষকে নানাভাবে অতিষ্ঠ করে তুলেছে। ভাবিকে কোপানোর ঘটনায় হাবিবুর রহমান জুনাক বিরুদ্ধে রামু থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। হামলার শিকার পারভিন আকতার ও এলাকাবাসী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •