আবু সায়েম, কক্সবাজার :

কক্সবাজার শহরের ভাঙ্গা রাস্তা নিয়ে চরম বিরক্ত পথচারীরা। শুধু প্রধান সড়ক নয় পৌর এলাকার বেশির ভাগ উপ সড়কের বেহাল দশা। স্থানীয়দের দাবি, অতীতে কোন সময় এত ভাঙ্গা সড়ক দেখেনি তারা। এতে ভেস্তে যাচ্ছে কক্সবাজারে চলমান সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম। তাই সরকারের ইমেজ ধরে রাখতে দ্রুত সড়ক সংস্কারের দাবি জানান সচেতন মহল।

পথচারীরা বলেন, কক্সবাজারের সড়কের এত বেহাল অবস্থা আমরা আগে কখনো দেখিনি।  নারী-পুরুষ সবাই শুধু ভাঙ্গা রাস্তা নিয়ে কথা বলে কারণ মানুষ সত্যিকার অর্থে রাস্তায় চলতে চরম অসুবিধায় পড়ছে। অথচ আমাদের জানা মতে সারা দেশের সব জেলার মধ্যে কক্সবাজারেই সরকারের বেশি উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে। মানুষ কিন্তু সেগুলো নিয়ে কথা বলে না, শুধু রাস্তার সমালোচনা নিয়ে ব্যস্ত থাকে।

পথচারীরা আরো বলেন, মানুষ দৃশ্যমান কাজে বিশ্বাসি বর্তমানে কক্সবাজারে বিপুল উন্নয়ন কার্যক্রম চলছে এটা সত্য কিন্তু সেই উন্নয়ন থেকে মানুষ এখনো সুবিধা পায়নি বরং মানুষ রাস্তা ঘাটে চলাচল করতে চরম অসুবিধায় পড়ছে সেটাই বেশি দেখছে। তাই সাধারণ জনগণ যে সমালোচনা করবে এতে কোন সন্দেহ নেই। আমার মতে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে জবাবদিহিতার অভাব রয়েছে। মোট কথা সরকার যতই উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করুক না কেন মানুষ কিন্তু রাস্তাঘাট নিয়ে খুব বিরক্ত।

টেকপাড়া এলাকার মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আমার বয়স (৫২) আমাদের সামনের সড়ক এক সময় মাটির ছিল পরে ইট বিছিয়ে গাড়ি চলতো এরপরে পাকা রাস্তা হয়েছে অনেক কিছুই দেখেছি তবে রাস্তার এরকম করুণ অবস্থা আগে কখনো দেখিনি। জানিনা কর্তৃপক্ষ কি করে। তিনি বলেন, পৌর এলাকার বেশির ভাগ উপ সড়ক এতই নাজুক মানুষ রাস্তায় বের হলেই মন্দ কথা বলে।

তারা জানান, পর্যটন শহর কক্সবাজারের এসব সড়কে প্রতিদিন প্রায় ১০ হাজার যানবাহন চলাচল করে। ফলে সড়কের এ খানা-খন্দের কারণে প্রায় সময় শহরে যানজট লেগেই থাকে। দ্রুত এ সমস্যার সমাধান করা না হলে, সাধারণ পথচারীদের কষ্টের সীমা থাকবে না। লিংকরোড থেকে শুরু করে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ের সামনের সড়ক, হাসপাতাল সড়ক, বার্মিজ মার্কেট, রুমালিয়ারছড়া, বাজারঘাটা এমনকি পৌরসভার প্রধান সড়কটির পর্যন্ত বেহাল দশা। এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন স্থানীয় অধিবাসীরা। দিন দিন এসব সড়কের খানা-খন্দ বড় বড় গর্তে পরিণত হওয়ায় যানবাহন চলাচলেও সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দ্র‍ুত সড়ক ও উপ-সড়কগুলো সংস্কার করার জন্য সচেতন কক্সবাজারবাসী অনুরোধ জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •