কুরবানের আগেই কর্মকর্তাদের বেতনভাতা দিতে হোটেল মালিকদের অনুরোধ এমপি কমলের

প্রকাশ: ২০ জুলাই, ২০২০ ১১:০৫ , আপডেট: ২০ জুলাই, ২০২০ ১১:১৮

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


সভা শেষ এমপি কমলের সাথে ফটোসেশনে কক্সবাজার হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।

ইমাম খাইর:
আগামী কুরবানের আগেই কর্মকর্তাদের বেতনভাতা দিতে হোটেল মালিকদের প্রতি অনুরোধ করেছেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল।
তিনি বলেছেন, জীবন ও জীবিকা দু’টোই গুরুত্বপূর্ণ। পরিবেশ পরিস্থিতি বুঝে আমরা হোটেল-মোটেল খোলা রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত। সে জন্য সম্মিলিতভাবে বসতে হবে। করণীয় ঠিক করতে হবে।
কক্সবাজার হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।
সোমবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যায় হোটেল শৈবালের রেস্তোরাঁয় অনুষ্ঠিত সভায় এমপি কমল বলেন, প্রয়োজনের তাগিদে আমরা কক্সবাজারকে লকডাউন করেছিলাম। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জের মানুষগুলো যাতে কক্সবাজার এসে হোটেলগুলোতে আশ্রয় নিতে না পারে সেজন্য আমরা লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। এখন ঢাকা, চট্টগ্রাম অনেকটা ওপেন হয়েছে। ঈদের পরে আমরা বসে এ বিষয়ে কি করা যায়, সিদ্ধান্ত নেব।
সংগঠনের সভাপতি সুবীর চৌধুরী বাদলের সভাপতিত্বে এতে এমপি কমল উপস্থিতির উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা কুরবানির ঈদের পরপরই ওয়ার্কিং কমিটির মিটিং ডাকেন। সিদ্ধান্ত নেন। প্রয়োজনে ওই মিটিংয়ে আমরাও থাকব।
লকডাউনের আগে পুরোদমে ব্যবসা করেও হোটেল ম্যানেজার, শ্রমিকদের কেন বেতন দেয়া হলো না? মালিকদেরকে প্রতি প্রশ্ন রাখেন এমপি কমল।
তিনি বলেন, তারাই এখন প্রণোদনা চাচ্ছে। এ বিষয়ে মালিক সমিতির একজন নেতার সাথে আমার কথা হয়েছে।
হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ সভায় কয়েকটি দাবি পেশ করেন।
দাবীসমূহ হলো- কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও হোটেল-মোটেল গেষ্ট হাউস সমূহ খুলে দেয়া, কর্মচারীদের বকেয়া বেতন-বোনাস প্রদান, কাজে বহাল ও চাকুরীর নিশ্চয়তা।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক করিম উল্লাহ কলিমের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন আনোয়ার করিম, এডঃ রেজাউল করিম, মাহবুবুর আলম টিপু, এডঃ ইছহাক, আওয়াদ হোসেন কেনেডি, খায়রুল আমিন, মোঃ মাঈন উদ্দিন, সেলিম রেজা, হানিফ হেলালি, রেদোয়ান সাইদ বিপু, নুর বক্স কাজল, ওসমান গনি, আবদু রহমান, শহীদুল্লাহসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এর আগে রবিবার (১৯ জুলাই) একই দাবীতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দিয়েছেন তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •