সিবিএন ডেস্ক:
দীর্ঘ দুই মাসের জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে স্থগিত ঘোষণা করা হলো এবারের আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। করোনাভাইরাসের কারণে অন্য অনেক সিরিজ, টুর্নামেন্টের মতোই আজ স্থগিত ঘোষণা করা হলো আজকের আইসিসির সভার পর। করোনার ভয়াবহতার কথা মাথায় রেখেই এ সিদ্ধান্ত নিলো আইসিসি।

বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির নির্বাহী পরিষদের সভায় এ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টার পর আসে এ ঘোষণা। ঘোষণা অনুযায়ী, এক বছর পিছিয়ে দেয়া হলো এই টুর্নােমেন্ট। আগামী বছর অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর।

বলার অপেক্ষা রাখে না, দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ- অলিম্পিক গেমস আগেই এক বছর পিছিয়ে করা হয়েছে। স্থগিত হয়েছে ইউরো এবং কোপা আমেরিকাও। এরই ধারাবাহিকতায় এবার ঘোষণা এলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিতের।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য অনিশ্চিত সেই করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর থেকেই। গত তিন-চার মাসে অনেকবারই গুঞ্জন উঠেছে করোনার কারণে এবার আর বিশ্ব টি-টোয়েন্টি আসর বসবে না অস্ট্রেলিয়ায়।

খোদ আয়োজক অস্ট্রেলিয়াই মাস খানেক এ আসর অনুষ্ঠান ‘অসম্ভব’ বলে দাবি করেছিল। আয়োজক বোর্ড ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) এমন বক্তব্যেই বোঝা যাচ্ছিল, এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করা সত্যিই কঠিন।

একই সঙ্গে কয়েক দিন আগে করোনার কারণে এশিয়া কাপ বাতিল করা হয়। অবশেষে আইসিসির সভায় এলো করোনাকালীন সময়ে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।

প্রসঙ্গত আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হওয়ার কথা ছিল এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। ১৫ নভেম্বর ধার্য করা ছিল ফাইনাল। এখন সেটা বদলে আগামী বছর, অর্থাৎ ২০২১ সালের অক্টোবর-নভেম্বর মাসে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছে। আগামী বছরের ১৪ নভেম্বর ফাইনালের দিন চূড়ান্ত করা হলো আজকের সভায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •