মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের নতুন সুপার হিসাবে নিয়োগ পাওয়া ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান’কে দুর্নীতি দমন কমিশনে এন-৯৫ মাস্ক কেলেংকারী সহ সরকারি কেন্দ্রীয় ঔষাধাগারের বিভিন্ন অনিয়ম ও লুটপাটের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশন এর ঢাকার সেগুন বাগিচাস্থ প্রধান কার্যালয়ে ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান’কে সোমবার ২০ জুলাই এ জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। দুদকের বিশ্বস্ত সুত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুত্র জানায়, পূর্ব নির্ধারিত দেওয়া দুদকের নোটিশ অনুযায়ী সোমবার ২০ জুলাই সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান দুদক কার্যালয়ে যান। সেখানে তাকে সকাল ১১ টা থেকে সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত দীর্ঘ দেড় ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

এন-৯৫ মাস্ক, পিপিই কেলেংকারী সহ সরকারি কেন্দ্রীয় ঔষাধাগারের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মূল হোতা ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান’কে গত ৫ জুলাই কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে উপ পরিচালকের মর্যাদায় তত্বাবধায়ক (সুপার) হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়ে। সেন্ট্রাল মেডিকেল স্টোর ডিপার্টমেন্ট (সিএমএসডি) -এ (সিএমএসডি) অনিয়ম ও লুটপাটের চরম অভিযোগ উঠার প্রাক্কালে ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান (৩৯৮১৩) কে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের প্রধান হিসাবে এ নিয়োগ দেওয়া হয়। সারাদেশে ডা. মোঃ জাকির হোসেন খানের এসব কেলেংকারী নিয়ে সারদেশে সমালোচনার ঝড় উঠে। এনিয়ে চরমভাবে বিব্রত হয় সরকার।

দুদকের তলবে দুর্নীতির জবাবদিহিতা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় কক্সবাজারে নিয়োগ পাওয়ার ১৬ দিনেও ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান নতুন কর্মস্থল কক্সবাজারে যোগদান করতে পারেননি। অন্যদিকে, কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের সহকারী সুপার ডা. রফিকুস সালেহীনকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে সাবেক সুপার ডা. মো. মহিউদ্দিন কক্সবাজার থেকে বিদায় নিয়েছেন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপ সচিব শারমিন আক্তার জাহান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে গত ৫ জুলাই এ ২ জন উর্ধ্বতন কর্মকতা সহ মোট ৬ জন বিসিএস (স্বাস্থ্য) বিভাগীয় কর্মকর্তাকে দেশের বিভিন্নস্থানে নিয়োগ বদলী আদেশ দেওয়া হয়।

এদিকে, দুর্নীতি ও লুটপাটের চরম অভিযোগ উঠা ডা. মোঃ জাকির হোসেন খান’কে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের সুপার হিসাবে নিয়োগ দেওয়ায় জেলার নাগরিকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। জেলার বিভিন্ন সংগঠন দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ডা. মোঃ জাকির হোসেন খানকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের সুপার হিসাবে দেওয়া নিয়োগ বাতিল করার দাবি তুলেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •