শাহেদ মিজান, সিবিএন:

কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে ঠেলাগাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া লাশটি এক বেওয়ারিশ ব্যক্তির। গতকাল শনিবার ঠেলাগাড়ি নিয়ে লাশ বহন করে নিয়ে যাওয়ার একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এই ছবি দেখে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বিস্ময় প্রকাশ করেন। এই ঘটনা নিয়ে বেশ সমালোচনাও চলছে।

এই বিষয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) শাহীন আবদুর রহমান জানান, লাশটি বেওয়ারিশ একজন ব্যক্তির। ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে আনা হয়েছিলো। বেওয়ারিশ হওয়ায় ময়না তদন্ত শেষে দাফনের জন্য পৌরসভাকে হস্তান্তর করে মর্গ কর্তৃপক্ষ। পরে পৌরসভার লোকজন ঠেলাগাড়িতে করে দাফনের জন্য লাশটি নিয়ে যায়।

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ঠেলাগাড়ি নিয়ে বহন করে নিয়ে যাওয়া লাশটি একজন পুরুষের। শুক্রবার দুইজন লোক ঠেলাগাড়ি করে সদর হাসপাতালের মর্গ থেকে লাশটি নিয়ে যায়। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কালো পলিথিনে মোড়ানো লাশটি দুইজন ব্যক্তি টেনে নিয়ে যাচ্ছেন। সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও লাশটির পরিচয় সনাক্ত করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কক্সবাজার পৌরসভার দাফন টিমের প্রধান নূরুল আলম বলেন, ‘লাশটি একটি রাখাইন সম্প্রদায়ের লোকের। বেওয়ারিশ হলেও গায়ে ট্যাটু থাকায় তাদের ধর্ম মতে শহরের মগচিতা পাড়ার শ্মশানে লাশটি সৎকার করা হয়েছে।’ তবে লাশ বহনের অন্য বাহনের ব্যবস্থা না থাকায় ঠেলাগাড়িতে বহন করেছেন বলে জানান নূরুল আলম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •