এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁওঃ
ব্যস্তবহুল বাণিজ্যিক উপশহর ঈদগাঁও বাজারে মালবাহী ট্রাকসহ তিন চাকা গাড়ীর যন্ত্রণা বেড়ে চলেছে।
এতে যানজটের কবলে পড়ছে নানা পথচারীরা।
নিত্যদিনের যানজট ঠেকাতে বাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে বাঁশকল দিয়েছে বাজার কমিটি।
মালবাহী ট্রাকের কারণে আটকে থাকতে হয় অসংখ্য ছোট ছোট পরিবহন নানা শ্রেনী পেশার মানুষকে।
ঈদগাঁও বাজারের প্রধান ডিসি সড়কজুড়ে মালবাহী ট্রাক প্রবেশ করে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তীব্র আকারে যানজট সৃষ্টি করে রাখে। এমনই চিত্র চোখে পড়ে এ প্রতিবেদকের।
বিশেষ করে, চট্রগ্রাম থেকে মালবাহী ট্রাকের পাশাপাশি তিনচাকার যানবাহনও কম নয় যানজট সৃষ্টির পেছনে। এমন অভিযোগ লোকজনের। বাজারের ভেতরে যত্রতত্র স্থানজুড়ে সড়কের দু-পাশ তিন চাকা গাড়ীর দখলে থাকে প্রায়শ। এসব গাড়ী গ্রামীন সড়ক পেরিয়ে মহাসড়কে বেপরোয়া গতিতে চালনার ফলে এহেন অবস্থার সৃষ্টি বলে জানান সাধারন মানুষ।
ষ্টেশনের দু-পাশ জুড়েই নানা যানবাহন সারিবদ্ব ভাবে থাকায় অন্যগাড়ী চলাচল করতে হিমশিম খাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে যত্রতত্র স্থানে বাড়ছে যানজট। রিক্সার পাশাপাশি যন্ত্রচালিত এসব লাইসেন্সবিহীন তিন চাকার যানবাহনও চলছে সমানতালে। তাতে আবার অদক্ষও আনাড়ী চালক। নীতি মালার সীমাবদ্ধতার অজুহাতে এগুলো নিয়ন্ত্রণের দায়দায়িত্ব নিতে চায়না সংশ্লিষ্টরা। কোন রকম ভয়, দ্বিধা-দ্বন্ধ ছাড়া রাস্তায় দূরন্ত বেগে ছুটে যাওয়া ব্যাটারী চালিত যানবাহনে বেড়ে চলছে প্রায়শ দূর্ঘটনা। এসব ব্যাটারী চালিত গাড়ী ব্যস্ত সড়কে চলে অনেকটা দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে। বিদ্যুৎ চালিত অটো রিক্সার পাল যেন প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চলের আনাছে কানাছে। যত্রতত্র স্থানে এসব যানবাহনের কারনে একের পর এক যানজট লেগে থাকে। অসহায় লোকজন এ দুর্ভোগ যেন রক্ষা পাচ্ছেনা কোনভাবে।
যানজটের কবলে আটকে থাকা কজন রিক্সা চালকরা জানান, ঢাকা-চট্রগ্রাম থেকে আসা বড়বড় ট্রাক যখন তখন প্রবেশ করায় বাজার বাসীকে নিদারুন ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।
যানজট দুরীকরনে মাইকিং করে ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের নেতৃবৃন্দ ১৬ জুলাই দুপুর থেকে বাজারের তিন পয়েন্টে সভাপতি শাহনেওয়াজ চৌধুরী মিন্টু, সহ-সাধারন সম্পাদক হাসান তারেকসহ নেতৃবৃন্দ অবস্থান নেন।
তারা বাজার এলাকায় যানজট নিয়ন্ত্রনে প্রানপন চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। সেই সাথে এবার যানজট ঠেকাতে বাজারের দু-পয়েন্টে বাঁশকলও দেন।
বাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে বাঁশকল পদ্ধতি ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে জানান বাজার কমিটির সহসাধারণ সম্পাদক হাসান তারেক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •