মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

বান্দরবানের লামা-তে নতুন ইউএনও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। নতুন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর নাম মোঃ রেজা রশীদ (২০৫১৮)। নতুন ইউএনও খুলনা জেলার বাসিন্দা। তিনি বিসিএস (প্রশাসন) ৩১ তম ব্যাচের কর্মকর্তা।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান কর্তৃক গত ১৬ জুলাই স্বাক্ষরিত ৩৩৫ নম্বর স্মারকে জারীকৃত এক প্রজ্ঞাপনে লামা’র নতুন ইউএনও মোঃ রেজা রশীদ সহ ৫ জন একই পদমর্যদার কর্মকর্তাকে চট্টগ্রাম বিভাগের বিভিন্ন উপজেলায় ইউএনও হিসাবে নিয়োগ প্রদান করা হয়।

এর আগে তুমুল পারিবারিক বিতর্কের মধ্যে গত ১২ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে বান্দরবান জেলার লামা ইউএনও বেগম নুর-এ-জান্নাত রুমি-(১৬৮৮১) কে ইউএনও হিসাবে রংপুর বিভাগের কোন উপজেলায় পদায়ন করে নিয়োগ দেওয়ার জন্য তাঁর চাকুরী রংপুর এর বিভাগীয় কমিশনার এর নিকট ন্যস্ত করা হয়।

লামা’র বিদায়ী ইউএনও নুর-এ-জান্নাত রুমী ২০১৮ সালের ১৩ মার্চ থেকে লামা’র ইউএনও হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। নুর-এ-জান্নাত রুমী বিসিএস (প্রশাসন) ৩০ তম ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। তিনি লামায় তাঁর সরকারি বাসভবনে থাকেন। অপরদিকে, তাঁর স্বামী এটিএম ওমর ফারুক রুবেল বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার হিসাবে চাকুরীরত আছেন। তিনি বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে সরকারি বাসভবনে থাকেন। রুমী ও রুবেল দম্পতির নাসিউল আলম রাহিব নামক তিন বছরের ফুটফুটে বুকজুড়ানো এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

এটিএম ওমর ফারুক রুবেল কক্সবাজার শহরের প্রভাতী স্কুলের সিনিয়র সহকারী শিক্ষিকা বুলবুল এ জান্নাত এবং কক্সবাজার শহরের সাগরগাঁও হোটেলের জিএম জাফর আলম দিদারের জ্যষ্ঠ পুত্র। রুমি-রুবেল দম্পতির পারিবারিক ঘটনা ছিলো কক্সবাজার, বান্দরবান সহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের বেশ আলোচিত বিষয় এবং গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অন্যতম উপজীব্য।

নুর-এ-জান্নাত রুমী এবং তাঁর স্বামী এটিএম ওমর ফারুক রুবেলের মধ্যে পারিবারিক ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়েছেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম।

বান্দরবানের লামা’র ইউএনও নুর-এ-জান্নাত রুমী এবং তাঁর স্বামী বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার ওমর ফারুক রুবেলকে গত ১৩ জুলাই রাত্রে বান্দরবান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম তাঁর সরকারি বাংলোতে ডেকে নিয়ে দীর্ঘক্ষন তাঁদেরকে বুঝান। পরে উভয়ে ভূলবুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে পুণরায় সংসার করতে প্রাথমিকভাবে সম্মত হন।

ভুল বুঝাবুঝির অবসানের পর বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার ওমর ফারুক রুবেল কক্সবাজার শহরের প্রভাতী স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক বুলবুল এ জান্নাত এবং জাফর আলম দিদার লামায় গিয়ে ইউএনও নুর-এ-জান্নাত রুমী ও সন্তান নাসিউল আলম রাহিবকে দেখে এসেছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে, লামা’র বিদায়ী ইউএনও নুর-এ-জান্নাত রুমী তাঁর অফিসিয়াল কাজকর্ম আগামী সপ্তাহের মধ্যে গুছিয়ে নিয়ে, লামা থেকে বিদায় নেবেন বলে বিশ্বস্ত সুত্র সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। পরবর্তী সপ্তাহে তিনি রংপুর বিভাগীয় কমিশনার এর কার্যালয়ে যোগদান করবেন বলে একই সুত্র জানিয়েছেন।
এদিকে, রুমি-রুবেল দম্পত্তির সুখের সংসারে অনৈতিকভাবে আগুন জ্বালানোর অভিযোগ আসা, লামা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদুল হককে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসাবে গত ১৫ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে বদলি করা হয়েছে। ডা. মোহাম্মদুল হক ২৪ তম বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা এবং লামা উপজেলার আজিজনগরের বাসিন্দা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •