মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সার্জারী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি (৪৭) আর নেই। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে তিনি ঢাকাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন)। তিনি গত ২৮ জুন থেকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. শাহজাহান নাজির সিবিএন-কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা ফরিদুল আলম এর মেয়ের জামাতা এবং কক্সবাজার-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজলের খালতো বোন সেতু’র স্বামী।

মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি’র ভায়রা ভাই বিশিষ্ট ডেন্টাল সার্জন মিজানুর রহমান সিবিএন-কে জানান, মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৩৩ তম ব্যাচের মেধাবী ছাত্র ছিলেন। তিনি সার্জারীতে এফসিপিএস ও এমএস করেছেন কৃতিত্বের সাথে। সার্জারীর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসাবে মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি’র সুনাম ছিলো কুষ্টিয়ার সর্বত্র। ফ্রন্ট লাইনের অকুতোভয় এই করোনা যোদ্ধা চাকুরী জীবনের শুরুতে কক্সবাজারেই দায়িত্ব পালন করছেন সুনামের সাথে দীর্ঘদিন।

মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি’র মৃতদেহ ঢাকা থেকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে শুক্রবার ১৭ জুলাই দুপুরে। সেখানে জুমার নামাজের পর তাঁর প্রথম নামাজে জানাজা এবং পরে তার গ্রামের বাড়ি মেহেরপুর জেলায় তার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে তাকে মেহেরপুরেই দাফন করা হবে বলে ডেন্টাল সার্জন ডা. মিজানুর রহমান জানিয়েছেন। মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি ৩ শিশু পুত্র সন্তানের জনক ছিলেন।

দায়িত্ব পালন ও বৈবাহিক সম্পর্কের সুবাদে কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাহ এলাকার বাসিন্দাদের সাথে মরহুম ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি’র সম্পর্ক ছিল বেশ ভালো। তাই ডাঃ নুরুদ্দীন রুমি’র মৃত্যুর সংবাদে বৃহত্তর ঈদগাহ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •