এ বি ছিদ্দিক খোকন :
কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ নজরুল ইসলাম চৌধুরীকে গার্ড অব অনারের মধ্যদিয়ে রাষ্ট্রিয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন।   ৮ জুলাই রাতেই তাঁর দাফন কার্য সমাপন করা হয়।

এর আগে রাত সাড়ে ১১টার দিকে বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজার পুর্ব মুহুর্তে রাষ্ট্রিয় সম্মান জানায় জেলা ও পুলিশ প্রশাসন। জেলা আওয়ামীলীগ ও কক্সবাজার পৌরসভাসহ ফুলেল শ্রদ্ধাও নিবেদন করে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন।
জানাযার নামাজে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড.সিরাজুল মোস্তফা,সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান,সংসদ সদস্য জাফর আলম , সাইমুম সরওয়ার কমল , আশেক উল্লাহ রফিক ,  ,জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন,পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন,সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েলসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

পরে স্থানীয় বৈল্যাপাড়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য,  নজরুল ইসলাম চৌধুরী বুধবার (৮ জুলাই) বিকাল চারটার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

তিনি শহরের কলাতলী এলাকার মরহুর মাওলানা ফজলুল হকের বড় ছেলে। সাংসারিক জীবনে তিনি ১ ছেলে ও ২ মেয়ের জনক ।

দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন নজরুল ইসলাম চৌধুরী। গত ২২ জুন দুপুরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বিকেল ৪ টার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরের দিন ২৩ জুন তার করোনা ধরা পড়ে। এরপর থেকে সদর হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ক’দিন পূর্বে ওখান থেকে ইউনিয়ন হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাব থেকে এই রিপোর্টে তার করোনা নেগেটিভ আসে।

নজরুল ইসলাম চৌধুরী ষাটের দশকের কক্সবাজার মহকুমার ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি কক্সবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ছিলেন। এছাড়া ছাত্র আন্দোলনের পাশাপাশি জেলায় আওয়ামীলীগ পূণ:গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসেবে ভূমিকা রাখেন। বিভিন্ন সময় আওয়ামী লীগের নানা পর্যায়ের দায়িত্ব পালন করেছেন। সর্বশেষ কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘ দিন দায়িত্বে ছিলেন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •