গত ৩০ জুন বেবেঙ্গল নামে একটি অনলাইন পত্রিকায় পাউবোর জমি দখল করে সাবেক চেয়ারম্যানের জমিদারি শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

এতে আমার খতিয়ানভুক্ত জায়গাকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা উল্লেখ করা হয়েছে।

তাছাড়া উক্ত জমি আমি দখল করেছি বলে ওই সংবাদে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক। পুরো সংবাদটি মনগড়া, কাল্পনিক, মিথ্যা।

আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন জায়গাটি দখলসহ আমার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ আনা হয়েছে, যা মোটেও সত্য নয়।

বিষয়টি আমার নজরে আসলে আমি গত ২ জুন বে-বেঙ্গল সম্পাদক ওসমান সরওয়ার ডিপু, প্রতিবেদক শাহিদ মোস্তাফা শাহিদ এবং এমডি শাহেদ নামে একটি ফেইসবুক থেকে অপপ্রচারের কারণে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে এজহাজার দায়ের করি। যা এখন তদন্তাধীন রয়েছে।

হঠাৎ ৬ জুন আব্দুল কাদের নামে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে অভিযুক্তদের গুম করে হত্যা করা হবে ইত্যাদি কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালিগালাজ করে একটি স্ট্যাটাস দেয়া হয়েছে, যা খুবই নিন্দনীয় এবং আইনগত মারাত্মক অপরাধ।

দৃঢ়ভাবে বলতে চাই, আমি বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

আব্দুল কাদের নামের হুমকি দিয়ে পোস্ট করা আইডিটা আমার নয়। এটি পরিকল্পিতভাবে একটি কুচক্রী মহল তাদের অপকর্ম ঢাকা দিতে আইডিটা ব্যবহার করছে।

এ বিষয়ে কাউকে বিব্রত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

পাশাপাশি এই ভুয়া আইডির মালিক কে শনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

আমি এই ফেসবুক আইডির বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেব।

নিবেদক
আব্দুল কাদের মাস্টার
সাবেক চেয়ারম্যান, ইসলামপুর ইউনিয়ন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •