সিবিএন ডেস্ক:
>> নিষিদ্ধ থাকছে নোট-গাইড
>> সন্ধ্যার পর কোচিং পরিচালনা করা যাবে
>> কোচিংয়ে নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীকে পাঠদান করাতে পারবেন না শিক্ষক

নোট-গাইড নিষিদ্ধ রেখে সন্ধ্যার পর কোচিং সেন্টার খোলা রাখার বিষয়ে খসড়া শিক্ষা আইন চূড়ান্ত করা হয়েছে। শিগগিরই চূড়ান্ত খসড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, দীর্ঘ ১০ বছর পর এ খসড়া আইন চূড়ান্ত করা হয়েছে। তবে এর ধারায় তেমন কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি। আইনের খসড়ায় কৌশলগতভাবে কোচিং থাকলেও নোট-গাইড বই থাকবে না বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

কোচিং সেন্টার পরিচালনা সংক্রান্ত ধারায় বলা হয়েছে, সন্ধ্যার পর কোচিং সেন্টার পরিচালনা করা যাবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট টিউশনির মাধ্যমে পাঠদানের জন্য কোচিং সেন্টার পরিচালনা করা বা কোচিং সেন্টারে শিক্ষকতা করা নিষিদ্ধ গণ্য হবে না।

বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চলাকালীন সন্ধ্যার আগ পর্যন্ত অর্থাৎ দিনে কোচিং সেন্টার পরিচালনা করা যাবে না। তা করা হলে ওই কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিল হবে। কোচিং সেন্টারে কোনো শিক্ষক তার নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীকে পাঠদান করাতে পারবেন না।

খসড়ায় আরও বলা হয়েছে, আইনে ড্রেস কোডের উল্লেখ থাকবে না। তবে নীতিমালা বা পরিপত্রে ড্রেস কোড নির্ধারণ করা হবে পরে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের বলেন, খসড়ায় তেমন কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি। আইনে না থাকলেও হয় এমন দুটি বিষয় বাদ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে একটি শিক্ষার্থীদের ড্রেস কোড। ড্রেস কোড আইনে রাখা হয়নি। খসড়া অনুযায়ী নোট-গাইড নিষিদ্ধ রাখার ধারাটি আগের মতোই রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •