প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী’র চিকিৎসার অবহেলার কথা শুনে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন-সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী’র পরিবারের একসাথে ৯ সদস্য কোভিড-১৯ ‘পজেটিভ’। গত ৪ জুন তাঁর মাতা ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন)।

এ অবস্থায় গত ২৯ জুন থেকে কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার বেসরকারি SARI আইসোলেশন এন্ড ট্রিটমেন্ট সেন্টারে চিকিৎসাধীন থাকা এডভোকেট আবু সিদ্দিক ওসমানী’র চিকিৎসা সেবায় চরম অবহেলা ও গাফেলতির খবর মেনে নেওয়া যায়না। তাঁকে মেয়াদোত্তীর্ণ ও নিম্নমানের ওষুধ সেবনে বাধ্য করা হয়েছে। আইসোলেশন সেন্টার কর্তৃপক্ষের রুঢ় আচরণও খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত এবং দুঃখজনক।

আইসোলেশন সেন্টার এর ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা RELIEF নামক সংস্থার প্রধান কাজি হায়দার থেকে এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী’র বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারেন নি। এ অবস্থায় বাধ্য হয়ে এ সব চরম অনিয়মের প্রতিবাদে তিনি গত ৫ জুলাই রোববার বাধ্য হয়ে সন্ধ্যা থেকে নিজ বেডে তাঁর বেড নম্বর D#2 তে অনশনে রয়েছেন। তখন থেকে গত সাড়ে ৬ ঘন্টার বেশী সময় পর্যন্ত এডভোকেট আবু সিদ্দিক ওসমানী সকল চেক-আপ, ওষুধ সেবন, খাওয়া দাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। এ অবস্থায় তাঁর শরীরের বিন্দু পরিমাণ কিছু হলে ‘RELIEF’ সম্পূর্ণ দায়ী থাকবে।

বিবৃতিতে সুপ্রিম আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী’র চিকিৎসার বিষয়টি কক্সবাজার জেলা প্রশাসন, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতিকে সচেতনতার সাথে দেখভাল করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রশাসনও এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী’র চিকিৎসার বিষয়টি নিয়মিত খোঁজ খবর রাখছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •